করোনা আতঙ্ক, লকডাউনে দুর্ভোগ বাড়ছে আমজনতার। রোজগার হারিয়ে বিপাকে পড়েছেন গরিব মানুষেরা। লালমাটির জেলায় অবশ্য মাত্র পনেরো টাকাতেই মিলছে ভরপেট আমিষ খাবার! অবাক লাগছে তো? বিশ্বাস না হলে আপনি যেতে হবে বাঁকুড়ার সোনামুখী শহরে। আপাতত পুজো পর্যন্ত এই পরিষেবা চালু করার পরিকল্পনা করেছেন উদ্যোক্তারা। 

আরও পড়ুন: করোনার থাবায় উধাও বিনোদন, কাজ হারানোর আশঙ্কায় অ্য়াকোয়াটিকার ১০০ শ্রমিক

করোনা আতঙ্কে রাতারাতি বদলে গিয়েছে জীবন। বেঁচে থাকার লড়াইটা কঠিন হচ্ছে ক্রমশই। লকডাউনের জেরে কাজ হারিয়ে দলে দলে পরিযায়ী শ্রমিক ফিরে এসেছেন রাজ্যে। চরমে আর্থিক সংকটে দিন কাটছে দিনমজুর, পরিবহণ শ্রমিক, হকারের মতো বিভিন্ন পেশার মানুষদের। পরিস্থিতি এমনই যে, দু'বেলা ভরপেট খাবার জোগানোটাই এখন রীতিমতো চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এভাবে আর কতদিন চলবে! অভাবের তাড়নায় আত্মহত্যা করতেও পিছুপা হচ্ছেন না অনেকেই।

আরও পড়ুন: চলতে পারে ট্রেন, করোনা সুরক্ষায় শিয়ালদহে 'বৃত্ত' আঁকার কাজ শেষের পথে

তাহলে উপায়? বাঁকুড়া জেলার সোনামুখী শহরে সিপিএমের জোনাল পার্টি অফিসে 'লালমাটির রান্নাঘর' চালু করেছেন বিভিন্ন বামপন্থী গণসংগঠনের কর্মীরা।  প্রতিদিন রান্না হচ্ছে সুস্বাদু প্রোটিনযুক্ত আমিষ খাবার। যাঁর যতটা প্রয়োজন, খাবার সংগ্রহ করে নিয়ে যাচ্ছেন বহু মানুষ। বাদ যাচ্ছেন না পথচলতি ভবঘুরে, এমনকী করোনা আক্রান্তদের পরিবারের সদস্যরাও। দাম? মাত্র পনেরো টাকার বিনিময়ে বিলি করা হচ্ছে কুপন। কঠিন সময়ে এমন মানবিক উদ্যোগে সাড়া পড়ে দিয়েছে সোনামুখী শহরে। উদ্যোক্তাদের সাধুবাদ জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।