Asianet News BanglaAsianet News Bangla

৯ বার যৌন সম্পর্কের পরেও বিয়েতে নারাজ প্রেমিক, স্ত্রীর মর্যাদা পেতে ধর্নায় প্রেমিকা

মানিকচকের ওই তরুণী জানাচ্ছেন, প্রায় এক বছর আগে একটি বিয়েবাড়িতে তাঁর সঙ্গে রতুয়ার এক যুবকের পরিচয় হয়৷ সেই পরিচয় থেকে প্রেম৷ তাঁদের মধ্যে নিয়মিত যোগাযোগ ছিল৷ প্রেমিকের হাত ধরে তিনি বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে গিয়েছেন৷

malda woman protested in front of her boyfriend's house demanding marriage bsm
Author
First Published Sep 13, 2022, 6:11 PM IST

দু’দিন আগেই হরিশ্চন্দ্রপুরের একটি স্ত্রীর মর্যাদার দাবিতে প্রেমিকের বাড়ির সামনে ধর্ণায় বসেছিলেন উত্তর দিনাজপুর জেলার এক তরুণী৷ তিনি অভিযোগ করেছিলেন, বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তাঁর সঙ্গে একাধিকবার সহবাস করেছেন প্রেমিক৷ ঠিক একই ঘটনা ঘটেছে মালদহের রতুয়ায়৷ এক্ষেত্রে তরুণীর বাড়ি মালদারই মানিকচক ব্লকে৷ সোমবার বিকেল থেকেই তিনি প্রেমিকের বাড়ির সামনে বিয়ের দাবিতে ধর্ণায় বসেছেন৷ খবর পেয়ে মঙ্গলবার রতুয়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছে৷ পুলিশকর্মীরা পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার চেষ্টা করছেন৷

মানিকচকের ওই তরুণী জানাচ্ছেন, প্রায় এক বছর আগে একটি বিয়েবাড়িতে তাঁর সঙ্গে রতুয়ার এক যুবকের পরিচয় হয়৷ সেই পরিচয় থেকে প্রেম৷ তাঁদের মধ্যে নিয়মিত যোগাযোগ ছিল৷ প্রেমিকের হাত ধরে তিনি বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে গিয়েছেন৷ হোটেলেও থেকেছেন৷ তাঁর পরিবারের সদস্যদের অনুপস্থিতিতে প্রেমিক তাঁর বাড়িতেও আসত৷ হোটেল এবং বাড়ি, দু’জায়গায় তাঁদের মধ্যে অন্তত ন’বার শারীরিক সম্পর্ক হয়েছে৷ প্রেমিক তাঁকে কথা দিয়েছিল বিয়ে করবে বলে৷ 

সোমবার তাঁকে নিজের বাডডিতে ঢেকেছিল সেই মতো তিনিও গতকাল বিকেলে প্রেমিকের বাড়িতে চলে আসেন৷ কিন্তু প্রেমিকের দেখা পাননি৷ অভিযোগ পরিবারের লোকজন তাঁর প্রেমিককে কোথাও লুকিয়ে ফেলেছে৷ গতকাল প্রেমিকের দেখা না পেয়ে তিনি এই গ্রামেই মাসির বাড়িতে রাত কাটান৷ এদিন সকালে ফের প্রেমিকের বাড়িতে যান৷ কিন্তু তার মা, বোনরা তাঁকে মারধর করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়৷ তাই তিনি প্রেমিকের বাড়ির সামনে বিয়ের দাবিতে ধর্ণায় বসেছেন৷ তাঁর কাছে নিজেদের সম্পর্কের একাধিক প্রমাণ রয়েছে৷ তিনি তাঁর প্রেমিককে বিয়ে না করে কোথাও যাবেন না - এমনটাও জানিয়েছেন। 

    এদিকে প্রেমিকের মাসি বলছেন, ধর্ণায় বসা যুবতী তাঁদের আত্মীয়৷ গতকাল সে তাঁর বোনের বাড়িতে এসে মুখ ঢেকে বসে পড়ে৷ সে তাঁর বোনের ছেলেকে বিয়ে করতে চায়৷ গতকাল সে বিশেষ কিছু বলেনি৷ রাত হয়ে যাওয়ায় তিনিই তাকে নিজের বাড়িতে নিয়ে যান৷ রাতটা তাঁর বাড়িতেই কাটায় সে৷ এদিন সকালে চা খেয়ে সে ফের তাঁর বোনের বাড়িতে চলে আসে৷ ফের বোনের ছেলেকে বিয়ের দাবি করে৷ এদিনই সে বলে, তাদের মধ্যে নাকি প্রেমের সম্পর্ক৷ তাদের নাকি শারীরিক সম্পর্কও হয়েছে৷ তাঁরা মেয়েটির বাবা আর দাদার সঙ্গে কথা বলতে চান৷ কিন্তু সে তাঁদের কারও ফোন নম্বর দেয়নি৷ মেয়েটি সম্পূর্ণ মিথ্যে কথা বলছে৷ তাঁর বোনের ছেলের সঙ্গে তার কোনও সম্পর্কই নেই, বলেও দাবি করেন তিনি ৷ তবে বিয়েবাড়িতে সে কিছু ছবি তুলেছিল৷ সেই ছবিগুলি তার কাছে থাকলেও থাকতে পারে৷ তাঁর বোনের ছেলে এই মুহূর্তে ভিনরাজ্যে শ্রমিকের কাজ করছে৷ তাকে গোটা বিষয়টি বলা হয়েছে৷ সে’ও এই মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক অস্বীকার করেছে৷ এমন মেয়েকে তাঁরা কিছুতেই ছেলের সঙ্গে বিয়ে দিতে রাজি নন বলেও জানিয়েছেন পরিবারের সদস্যরা। 

    ঘটনার খবর পেয়ে রতুয়া থানার পুলিশ ওই গ্রামে যায়৷ পুলিশকর্মীরা যুবতীকে থানায় নিয়ে যেতে চাইলেও তিনি প্রেমিকের বাড়ির সামনে থেকে নড়তে রাজি হননি৷ যুবতীর দেওয়া ফোন নম্বরে পরিবারের লোকজনের সঙ্গেও যোগাযোগের চেষ্টা করে পুলিশ৷ কিন্তু সেই নম্বরের ফোন সুইচ অফ হয়ে রয়েছে৷ পুলিশ গোটা ঘটনার উপর নজর রেখেছে৷

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios