উত্তরবঙ্গ উৎসবের মঞ্চ থেকে নাম না করে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে একহাত নিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন শিলিগুড়ির শিবমন্দিরে নবমতম উত্তরবঙ্গ উৎসবের সূচনা লগ্নে তিনি বলেন, এনপিআর প্রয়োগ হতে দেওয়া যাবে না। এতে ভুল বোঝানো হচ্ছে। আমি তার প্রতিবাদ করেছি। একাই পথ চলব। কারণ আমি ভোটের পাহাড়াদার নই। আমি জনগণের পাহাড়াদার।

এদিন বিকেল সাড়ে তিনটে নাগাদ উত্তরবঙ্গ উৎসবের সূচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। পরে শিলিগুড়ি জার্নালিস্ট ক্লাবের নতুন ভবনের দ্বারোদঘাটন করেন সরকারি মঞ্চ থেকেই। পরে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ছাত্রছাত্রীরাই দেশের ভবিষ্যৎ। এরাই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। তাই এদের ভবিষ্যৎ গড়ে তোলাই আমাদের লক্ষ্য। তাই ছাত্রছাত্রীদের জন্য একাধিক প্রকল্প রয়েছে। এরপরেই মুখ্যমন্ত্রী বিগতদিনের কাজের ফিরিস্তি তুলে ধরেন। জানান, বাম আমলে উত্তরবঙ্গ অবহেলিত ছিল। সেই বঞ্চনার জায়গা থেকে আজ উত্তরবঙ্গ অনেক পেয়েছে। আরও দেব। এখানের মানুষেরা ব্রাত্য ছিল। যোগ্য সন্মান পেত না। তাই এই উৎসবের মধ্যে দিয়ে আমরা সাধ্যমতোন সন্মান প্রদান করি। উত্তরবঙ্গ আমার আপন, দক্ষিণবঙ্গ আমার স্বজন। 

সোমবার অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, সিএএ বা এনপিআর কিছু লাগু হবে না রাজ্য়ে। তার বিরুদ্ধে আন্দোলন চলবেই। আপনারা ভয় পাবেন না। শান্তিতে থাকুন। হিন্দু মুসলিম সহ বিভিন্ন জাতি উপজাতি সবাইকে আমার প্রয়োজন। আমি শুধু ভোটের সময় পাহাড়াদার হিসেবে আসি না। সারা বছর উত্তরবঙ্গের খবর রাখি। এরপরেই নাম না করে বিজেপিকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, যে সন্মান করে সে প্রকৃত মানুষ। আর যে একজনকে আরেকজনের থেকে দূরে সরায়,সে প্রকৃত মানুষ হতে পারে না।