কৌশিক সেন, রায়গঞ্জ:  মাঠের ধান খেয়ে নিয়েছে ছাগল। সেই নিয়ে বিবাদে রক্তারক্তি কাণ্ড! দাদার হাতে 'খুন' হয়ে গেলেন এক যুবক। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে উত্তর দিনাজপুরের হেমতাবাদে। অভিযুক্ত পলাতক।

আরও পড়ুন: অর্জুন সিংয়ের বাড়িতে আচমকা পুলিশ, ওয়ারেন্ট না নিয়ে ঢুকতে গেলে বাধা

হেমতাবাদের বিষ্ণুপুর পঞ্চায়েতে বাসুদেবপুর গ্রামে বাসিন্দা নজরুল মহম্মদ ও ভরকুদ্দিন মহম্মদ। সম্পর্কে তাঁরা  দুই ভাই। গ্রামে একই জায়গায় পাশাপাশি জমি ধান চাষ করেছে দু'জনই। বহস্পতিবার সকালে ভরকুদ্দিনের পোষা ছাগল নজরুলের জমিতে গিয়ে ধান খেয়ে নেয় বলে অভিযোগ। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, ছাগলে ধান খাওয়াকে কেন্দ্র করে যখন বিবাদ চলছিল, আচমকাই ধারালো অস্ত্র দিয়ে ভককুদ্দিনকে কোপাতে শুরু করে নজরুল। রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিকে লুটিয়ে পড়েন আক্রান্ত যুবক। ঘটনায় আকস্মিকতা হতবাক হয়ে যান সকলেই।

আরও পড়ুন: বিয়ে করে 'প্রতারণার শিকার', শ্বশুরবাড়ির সামনে ধর্ণায় বসলেন গৃহবধূ

রক্তাক্ত অবস্থায় ভরকুদ্দিনকে প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যান স্থানীয় বাসিন্দারা। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। ওই যুবককে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। এদিকে বিপদ বুঝে ততক্ষণে এলাকা ছেড়ে পালায় অভিযুক্ত নজরুল মহম্মদ। ঘটনাটি জানাজানি হতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে গ্রামে। ঘটনার তদন্তে নেমেছে হেমতাবাদ থানার পুলিশ। অভিযুক্তের সন্ধানে তল্লাশি চলছে।