স্বামীকে মদ খাইয়ে বেহুশ করে স্ত্রীকে গণধর্ষণকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য় ছড়াল বসিরহাট থানা ময়লাখোলা স্টেশন পাড়া এলাকায়। ইতিমধ্য়েই বসিরহাট থানার পুলিশ অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেফতার করা হয়েছে যুবককে। পুরো ঘটনাটি ঘটেছে একটি মদের আসরে। আগামীকাল শুক্রবার অভিযুক্তকে বসিরহাট মহকুমা আদালতে তোলা হবে।

আরও পড়ুন, গভীর রাতে গ্রামে হাতির হানা, ঘুমন্ত অবস্থায় অগ্নিদগ্ধ একই পরিবারের তিনজন

 গতকাল বছর উনিশের গৃহবধূ বসিরহাট স্টেশন পড়ায় একজনের বাড়িতে ভাড়া থাকতো। স্বামী বাপি কর্মকার পেশায় ঠিকা শ্রমিক।  স্ত্রী ও স্বামী দুজনে একই বাড়িতে ভাড়া থাকতো। ঠিকা কাজের সুবাদে ঠিকাদার দিলীপ সরকার ও তার সহকর্মীর যুবক সমীর গাইন এর সঙ্গে  তার দীর্ঘদিনের আলাপচারিতা ছিল। এক জায়গায় মেলামেশা ছিল বাড়িতে আসা যাওয়া করত। গতকাল বুধবার রাত্রিবেলায় ওই ভাড়া বাড়িতে যায় দিলীপ সরকার ও সমীর গাইন সেখানে মদের আসর বসায়। নির্যাতিতা গৃহবধুর স্বামী বাপি কর্মকারকে মদ খাইয়ে বেহুঁশ করে ফেলে। তারপর ঘরের আলো বন্ধ করে রাত্রে লাগাতার গণ ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ। এমনকি ভয় দেখানো হয় ওই নির্যাতিতা গৃহবধু স্বামীকে।  

আরও পড়ুন, হাতির আক্রমণে কোণঠাসা চাষীরা, বনদপ্তরের দরজায় সর্বভারতীয় কৃষক সভা

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর বেলায় বসিরহাট থানায় দিলীপ সরকার ও সমীর গাইন বিরুদ্ধে গণধর্ষণের অভিযোগ করেন। ইতিমধ্যে বসিরহাট থানার পুলিশ ঠিকাদার দিলীপ  সরকারকে গ্রেপ্তার করেছে। বাকি একজন দুস্কৃতির সমীর পলাতক। তার বিরুদ্ধে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। ওই গৃহবধুকে জেলা হাসপাতাল মেডিকেল পরীক্ষা করানো হয়েছে। আগামীকাল শুক্রবার দিলীপ সরকারকে বসিরহাট মহকুমা আদালতে তোলা হবে ।