মগরা গজঘন্টা হরি মন্দির এর কাছে স্ত্রীকে কুপিয়ে খুন করে পলাতক স্বামী। মৃতের নাম প্রিয়াঙ্কা পোদ্দার। অভিযুক্ত কৃষ্ণ পোদ্দারকে খুঁজছে পুলিশ।

এলাকাবাসীরা জানিয়েছে, শনিবার সন্ধায় বাড়ি ফিরে স্ত্রীকে কুপিয়ে খুন করে অভিযুক্ত। বারো বছর আগে বিয়ে হয়েছিল দুজনের। সম্পর্কের অবনতি হওয়ায় বেশ কিছুদিন ধরে প্রিয়াঙ্কা মায়ের বাড়ি থাকছিল।সেখানে মাঝে মধ্যে আসত কৃষ্ণ। আজ সন্ধাতেও আসে অভিযুক্ত। এদিন বচসা হয় প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে।তারপরই তাকে কুপিয়ে খুন করে কৃষ্ণ।
মৃতের মা ঝর্না মালিক জানান,বিয়ের পর থেকেই মেয়েকে অত্যাচার করত জামাই।এর আগে তা নিয়ে থানা পুলিশও হয়।রাজমিস্ত্রীর কাজ করে কৃষ্ণ।মগরা কালিতলায় তার বাড়ি।গজঘন্টা হরিমন্দিরে বাড়ি ভাড়া নিয়ে থাকত।সেখানে যেতো না প্রিয়াঙ্কা।পেট চালাতে পরিচারিকার কাজ করত।আজ কাজ থেকে ফেরার পরেই এই ঘটনা।

এলাকার এক বাসিন্দা জানান,সন্ধে বেলায় খাবার আনতে বেড়িয়েছিলেন ওই মহিলা। হঠাৎই তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপাতে শুরু করেন তাঁর স্বামী। রক্তে ভেসে যায় শরীর। গলায় ও মুখে আঘাতের ফলে ঘটনাস্থলেউ মৃত্যু হয় আক্রান্তের। তবে কী  কারণে হঠাৎ ওই মহিলাকে এভাবে মারতে গেলেন স্বামী তা এখনও বুঝে উঠতে পারেনি পুলিশ। অভিয়ুক্তকে ধরতে শুরু হয়েছে জোরদার তল্লাশি।