কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ার বড় মাশুল দিতে হল এক গৃহবধূকে। আক্রোশ মেটাতে ওই গৃহবধূকে লক্ষ্য করে অ্যাসিড ছুড়ে পালাল এক যুবক। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার কৃষ্ণগঞ্জে। আক্রান্ত ওই গৃহবধূ বর্তমানে কৃষ্ণনগর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। অ্যাসিড হামলা রুখতে প্রশাসনের নজরদারি আদৌ রয়েছে কি না, তা নিয়েই বড়সড় প্রশ্ন উঠে গেল।

অ্যাসিড হামলায় অভিযুক্ত গৃহবধূর প্রতিবেশী নটবর বিশ্বাস ঘটনার পর থেকেই পলাতক। তার খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে কৃষ্ণগঞ্জ থানার পুলিশ। 

আরও পড়ুন- ফেসবুক লাইভে দিদিকে আর্তি, হরিয়ানায় রহস্যমৃত্যু চোপড়ার প্রেমিকের

সূত্রের খবর, নদিয়ার  কৃষ্ণগঞ্জ থানার ঘুঘরাগাছি এলাকার বাসিন্দা ওই গৃহবধূকে দীর্ঘদিন ধরে কুপ্রস্তাব দিচ্ছিল ওই এলাকারই বাসিন্দা নটবর বিশ্বাস। অভিযোগ, ওই গৃহবধূকে সেই প্রস্তাবে রাজি করানোর জন্য হুমকিও দিত নটবর। অভিযোগ,এর পরও নটবরের প্রস্তাবে সাড়া না দেওয়ায় বৃহস্পতিবার রাতে ওই গৃহবধূর বাড়ির ছাদের দরজা দিয়ে ভিতরে ঢোকে ওই অভিযুক্ত। এর পরে ঘুমন্ত অবস্থায় থাকা ওই গৃহবধূকে লক্ষ্য করে অ্যাসিড ছুড়ে পালিয়ে যায় সে।

গৃহবধূর চিৎকার শুনে সঙ্গে সঙ্গে ছুটে আসেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা। তখনই বোঝা যায়, অ্যাসিড ছোড়া হয়েছে তাঁকে। দ্রুত গৃহবধূকে চিকিৎসার জন্য শক্তিনগর সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এখন সেখানেই ভর্তি রয়েছেন তিনি। অভিযুক্ত নটবর বিশ্বাসের নামে কৃষ্ণগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে আক্রান্ত গৃহবধূর পরিবার।

অ্যাসিড হামলা রুখতে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে নানা বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছে। কিন্তু সেসবই যে খাতায় কলমে, তা ফের প্রমাণ করল কৃষ্ণগঞ্জের ঘটনা।