একেবারে অভিনব উপায়ে চুরি। সোনা চুরি করতে সরকারি আধিকারিক পরিচয় দিল দুষ্কৃতীরা। এরপর ব্য়াগ পরীক্ষার নামে চলল প্রশ্ন-উত্তর। শেষে কিছু বুঝে ওঠার আগেই প্রায় দু লক্ষ টাকার সোনা নিয়ে চম্পট দিল দুষ্কৃতীরা। এমনই ঘটনা ঘটেছে বর্ধমানের সোনাপট্টিতে। 
 
সরকারি আধিকারিক পরিচয় দিয়ে ব্যাগ পরীক্ষার নাম করে সোনা হাতিয়েছে দুষ্কৃতীরা। পুলিশ জানিয়েছে, বর্ধমানের আমড়াতলা গলির কাছে দিদির জন্য অপেক্ষা করছিলেন মন্তেশ্বরের স্বর্ণ ব্যবসায়ী কাজল দে। দুষ্কৃতীদের মধ্য়ে একজন পরিকল্পনা মাফিক কাজলবাবুকে সরকারি আধিকারিক পরিচয় দিয়ে ব্যাগ চেকিং করার কথা বলে। সেখানেই তারা অন্য এক ব্যক্তির ব্যাগ চেকিং করছিল। ফলে তাদের বিশ্বাস করতে অসুবিধা হয়নি কাজলবাবুর।  

ব্যাগের ভিতরে ১০০ গ্রাম সোনা থাকা সত্ত্বেও বিশ্বাস করে ওই ব্যক্তির হাতে ব্যাগ দেন কাজলবাবু। চেকিং করে ব্য়াগ ফেরত দেয় দুষ্কৃতীরা। কিন্তু পরে কাজলবাবু দেখেন, ব্যাগের মধ্যে সোনা নেই।  ততক্ষণে সোনা লুঠ করে দুষ্কৃতীরা চম্পট দিয়েছে। তারা কোন সময় তা বের করে নেয় তা বুঝতে পারেননি কাজলবাবু। এরপরই বর্ধমান থানায় অভিযোগ জানান তিনি। ইতিমধ্য়েই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ দেখে তদন্ত এগোচ্ছে।