কলকাতার কলেজে পড়তে গিয়ে জঙ্গি বনে যায় মেধাবী ছাত্রীটি। নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার পর এবার উত্তর ২৪ পরগণার বাদুড়িয়ায় লস্কর-ই-তৈবার সদস্য তানিয়া পারভিনের বাড়িতে তল্লাশি চালালেন এনআইএ-র গোয়েন্দারা। বুধবার রাতে প্রায় ঘণ্টা দেড়েক ধরে চলে তল্লাশি অভিযান। বেশ কয়েকটি বই ও ডায়েরি উদ্ধার করেছেন তদন্তকারীরা। তানিয়ার সঙ্গে কোন কোন প্রতিবেশীর ঘনিষ্ঠতা ছিল, সে বিষয়ে খোঁজ খবর নেওয়া হয়। 

আরও পড়ুন: রাজ্যের আমফান বিধ্বস্ত এলাকায় ত্রান ও পুনর্বাসনের জন্য এক কোটি টাকা দান এই ব্যাঙ্কিং সংস্থার

বুধবার রাতে কড়া নিরাপত্তায় তানিয়াকে তার গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যান সল্টলেকে এনআইএ-র পূর্বাঞ্চলীয় সদর দপ্তরের আধিকারিকরা। গ্রামের বাড়িতে সিল করা বেশ কয়েকটা ঘরে তল্লাশি চালান তাঁরা। কথা বলেন প্রতিবেশীদের সঙ্গেও। পাড়ার কাদের সঙ্গে তানিয়া বেশি মেলামেশা ছিল? কারাই বা বাড়িতে যাতায়াত করত? সে বিষয়টিও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বরাবরের মেধাবী ছাত্রী, বাদুড়িয়া থেকে কলকাতায় আরবি ভাষা নিয়ে পড়তে যায় তানিয়া পারভিন। আর সেটাই কাল হয়। রীতিমতো মগধঝোলাই করে তাকে দলে টানে লস্কর জঙ্গিরা। জানা গিয়েছে,  লস্করের কলকাতা মডিউলের সদস্য় ছিল বাদুড়িয়ার তরুণী।  তাঁর অ্যাকাউন্টে কোটি কোটি টাকা লেনদেন হওয়ায় প্রথম সন্দেহ হয় কলকাতা পুলিশের। নজরদারি শুরু করেন স্পেশাল টাস্ক ফোর্সের আধিকারিকরা।

আরও পড়ুন: জঙ্গলে খাবারে আকাল, গ্রামে ঢুকে রেশন দোকানে হানা দিল হাতি

মার্চ মাসে গ্রেফতার করা হয় তানিয়া পারভিনকে। সম্প্রতি রাজস্থানে হ্যানিট্র্যাপের পর্দাফাঁস হয়। এরপর কোমর বেঁধে নামেন এনআই আধিকারিকরা। সূত্রের খবর, এই হ্যানিট্র্যাপে সিদ্ধহস্ত তানিয়া। তাকে নিজেদের হেফাজতে নেয় জাতীয় তদন্তকারীর সংস্থার আধিকারিকরা।