ফ্রান্সের গ্রিক অর্থোডক্স চার্চে হামলার প্রতিবাদে গোটা বিশ্ব। চার্চের ভিতর ঢুকে এলাপাথাড়ো ছুরির আঘাতে এক মহিলা প্রিস্ট সহ তিনজনের মৃত্যু। গির্জার মহিলা নৃশংসভাবে গলা কেটে খুন। জখম হয়ে আরও বেশ কয়েকজন। গির্জায় ঢুকে নৃশংস হত্যালীলার প্রতিবাদে সরব গোটা বিশ্ব। ঘটনার দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট। এর বিরোধিতায় বেশ কিছু ইসলাম বিরোধী মন্তব্য করেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। এই মুসলিম বিরোধী কার্যকলাপেরল প্রতিবাদে ফুঁসছে গোটা বিশ্বের মুসলিম সমাজ। 

আরও পড়ুন-রাস্তায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছে জনাদশেক ভূতের একটি দল, তাঁদের আন্তরিকতায় মুগ্ধ শহরবাসী

সেই প্রতিবাদের আঁচ পড়ল ইন্দো-বাংলা সীমান্তবর্তী জেলা নবাব নগরী মুর্শিদাবাদে। জেলার প্রদীপডাঙা এলাকায় স্থানীয় ইমাম ও পীরজাদারা সন্ত্রাস হামলার প্রতিবাদে সোচ্চার হলেন। ইমাম ও পীরজাদারা একজোট হয়ে প্রতিবাদে মিছিল করেন। নবির কার্টুন দেখানে ঘিরে স্যামুয়েল পার্টির নামে এক শিরচ্ছেদ করে হত্যা করে হামলাকারী। ফ্রান্সের সেই ঘটনার প্রতিবাদে বাংলায় সোচ্চার হলেন মুসলিম সমাজের মানুষরা।

আরও পড়ুন-কাশ্মীরে খতম ওয়ান্টেড তালিকার শীর্ষে থাকা জঙ্গি নেতা, একই বছরে দুবার কমান্ডার হারালো হিজবুল

মুর্শিদাবাদের প্রদীপডাঙা মোড়ে মিছিলের পর একটি সভা করে, ফরাসী জিনিসপত্র বর্জনের আহ্বান জানান মুসলিম সমাজকে। ফরাসীদের তৈরি জিনিস বিক্রি বন্ধের জন্য স্থানীয় দোকানদার ও ব্যবসায়ীদের কাছে আবেদন জানান তাঁরা। পাশপাশি, সাধারণ মানুষের প্রতি তাঁদের আবেদন, তাঁরা যেন কেউ কোনও ভাবে ফরাসী দ্রব্য ব্যবহার না করেন এবং অন্য কাউকে ব্যবহার করতে না দেন।