পুরুষ বিভাগে ভর্তি ছিলেন তিনি। সকালে স্ত্রী যখন খাবার দিতে যান, তখন দেখেন বেড খালি! ফের সরকারি হাসপাতাল থেকে নিখোঁজ হয়ে গেলেন এক রোগী। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে মালদহে। ইংরেজবাজার থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন রোগীর পরিবারে লোকেরা। তদন্তের আশ্বাস দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন: ধৃত ভুয়ো ২ বিএসএফ কর্মী, ছদ্মবেশের আড়ালে গাঁজা পাচারের চেষ্টা

নিখোঁজ রোগীর নাম আবুল তালাহা। বাড়ি, পুকুরিয়া থানার সম্বলপুর পঞ্চায়েতের ইসলামপুর গ্রামে। সুগার ও বুকের যন্ত্রণার উপসর্গ নিয়ে বৃহস্পতিবার মালদহ মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি হন আবুল। স্ত্রী হাসনারা বিবি জানিয়েছেন, পুরুষ বিভাগে ভর্তি ছিলেন তিনি। তাই রাতে স্বামীর কাছে থাকতে পারেননি, হাসপাতালে বাইরে ছিলেন। সকালে খাবার দিতে গিয়ে দেখেন, আবুল বেডে নেই! রোগী গেল কোথায়? পরিবারের লোকেদের দাবি, কর্তব্যরত নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের কাছে আবুলের খোঁজ করেছিলেন। কিন্তু কেউ কিছু বলতে পারেননি। এরপর প্রথমে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে লাগোয়া পুলিশ ক্যাম্পে অভিযোগ জানান আবুল তালাহের পরিবারের লোকেরা। পরে অভিযোগ দায়ের করা হয় ইংরেজবাজার থানায়ও। কিন্তু এখনও পর্যন্ত ওই ব্যক্তির খোঁজ মেলেনি।   কী বলছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ? মালদহ মেডিক্যাল ও কলেজে হাসপাতালে সহকারী অধ্যক্ষ অমিত দাঁ-এর বক্তব্য, 'অফিশিয়াল কাজে বাইরে আছি। এ বিষয়ে কিছু জানি না। যদিও কোনও অভিযোগ থাকে, তাহলে অবশ্যই তদন্ত করে দেখা হবে।' এদিকে হাসপাতাল থেকে রোগীর নিখোঁজ যে অভিযোগ যে জমা  পড়েছে, সেকথা স্বীকার করেছেন ইংরেজ বাজার থানার আধিকারিকরা।

আরও পড়ুন: মৎস্যজীবীদের জালে দৈত্যাকার চিলশঙ্কর মাছ, হুলুস্থুলু কাণ্ড দিঘায়

উল্লেখ্য, কয়েক মাস আগে উত্তর ২৪ পরগণার হাবড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে থেকে নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিলেন এক বৃদ্ধা। বার্ধক্যজনিত অসুখে ভুগছিলেন তিনি। ঘটনার ১৮ দিন পর ওই বৃদ্ধার হদিশ মেলে শিয়ালদহ স্টেশনে প্ল্যাটফর্মে। এবার একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটল মালদহ মেডিক্যাল কলেজ ও  হাসপাতালে। প্রশ্নের মুখে হাসপাতালে নিরাপত্তা ও নজরদারি।