বাংলাদেশি জলদস্যু আশারফ সর্দারকে গ্রেফতার পর মিলল আরও বড় সাফল্য। তাকে ভুয়ো আধার কার্ড, প্যান কার্ড তৈরি করে দেওয়ার অভিযোগে দু'জনকে গ্রেফতার করল সোনারপুর থানার পুলিশ।এই চক্রের সঙ্গে কি আরও কেউ জড়িত? খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা।

আরও পড়ুন: খিদের জ্বালায় বেঘোরে মৃত্যু, ডুয়ার্সের চা বাগানে ফের বিদ্যুৎপৃষ্ট পূর্ণবয়ষ্ক হাতি

একজনের নাম মুজিবর লস্কর, আর একজনের কুমারেশ মহাজন। মুজিবর চাকলা কুস্তিয়ার বাসিন্দা, কুমারেশের বাড়ি দক্ষিণ ২৩৪ পরগণার চম্পাহাটি এলাকায়। তাদের কাছ থেকে ২মনিটর, ২টি সিপিইউ, ২টি প্রিন্টার, বায়োমেট্রিক মেশিন উদ্ধার করেছে পুলিশ। জানা গিয়েছে, সোনারপুরের প্রসাদপুর এলাকায় একটি সাইবার ক্যাফে আছে। সেই ক্যাফেতে বসেই জাল ভোটার কার্ড, আধার কার্ড ও প্যান কার্ড বানাত কুমারেশ ও মজিবর। স্রেফ বাংলাদেশি জলদস্যু আশারফ সর্দারকেই নয়, এর আগেও অনেকে ভুয়ো নথি তৈরি করে দিয়েছে তারা।

আরও পড়ুন: ভার্চুয়াল সভা শেষে পতাকা তুলতে 'বাধা', দলের কর্মীদের বিক্ষোভের মুখে তৃণমূল বিধায়ক

উল্লেখ্য, এর আগে বুধবার ভোরে সোনারপুরে হদিশ মেলে বাংলাদেশি  জলদস্যু আশারফ সর্দারের। ভুয়ো ভোটার কার্ড, আধার কার্ড, এমনকী, প্যানকার্ড-সহ তাঁকে গ্রেফতার করে পুলিশ। কিন্তু ভুয়ো নথি সে পেল কোথায় পেল? এবার সেই রহস্যও ভেদ করে ফেললেন তদন্তকারীরা।