বুদ্ধদেব পাত্র, পুরুলিয়া:  একজন সদ্যোজাত, আর একজনের বয়স মোটে দেড় বছর। মানসিক অবসাদ আত্মহত্যা করেছেন তাদের মা। ব্যাঙ্কের আলাদা অ্যাকাউন্ট খুলে দু'জনের জন্য এক লক্ষ টাকা আর্থিক সাহায্য করলেন পুলিশকর্মীরাই। মানবিকতার সাক্ষী থাকল পুরুলিয়ার রঘুনাথপুর।  

আরও পড়ুন: রবিনসন স্ট্রিটের ছোঁয়া এবার হাওড়াতে, মৃত দাদা-দিদির দেহ আগলে বোন

ঘটনার সূত্রপাত ২২ সেপ্টেম্বর। পুরুলিয়ার রঘুনাথপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের শৌচাগার থেকে উদ্ধার হয় লক্ষ্মী বাউড়ি নামে এক গৃহবধূর মৃতদেহ। হাসপাতাল সূত্রে খবর, দিন কয়েক আগে ওই হাসপাতালে কন্যাসন্তানের জন্ম দেন তিনি। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, কন্যা সন্তান হওয়ায় বা অন্য কোনও কারণে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন লক্ষ্মী। সকলের অলক্ষ্যে শৌচাগারে গিয়ে আত্মহত্যা করেছেন তিনি। সদ্যোজাত একা নয়, মৃতার বছর দেড়েক আরও এক কন্যাসন্তানও আছে। মাতৃহারা দুই শিশুর এখন কী হবে? চিন্তায় পড়ে দিয়েছিলেন পরিবারের লোকেরা। মুস্কিল আসান করে দিলেন রঘুনাথপুর থানার পুলিশকর্মী। নিজেরাই উদ্যোগ নিয়ে ওই দুই শিশুর নামে ব্যাঙ্কে আলাদা অ্যাকাউন্ট খুলে জমা করে দিলেন এক লক্ষ টাকা।

আরও পড়ুন: আইপিএল মরশুমে ফের বেটিং চক্রের পর্দাফাঁস, মেমারিতে গ্রেফতার ৩

মঙ্গলবার দুপুরে রঘুনাথপুর থানায় এসেছিলেন মৃতার মা কল্যাণী বাউরি। তাঁর হাতে পাসবই-সহ ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট সংক্রান্ত নথি তুলে দেন এস ডি পি ও দুর্বার বন্দ্যোপাধ্যায়। উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় বিধায়ক পূর্ণচন্দ্র বাউরি  রঘুনাথপুর থানার আইসি সন্দীপ চট্টরাজও। পুলিশের এমন ভূমিকায় অভিভূত সকলে।