পত্রলেখা বসু চন্দ্র, বর্ধমান:  আইপিএলের মরশুমের ফের বেটিং চক্রের পর্দাফাঁস রাজ্যে। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে প্রথমে দু'জন, তারপর আরও একজনকে গ্রেফতার করল পুলিশ। ধৃতদের কাছে নগদ ৬৫ হাজার টাকা ও বেশ কয়েকটি মোবাইল ফোন পাওয়া গিয়েছে। চক্রের সঙ্গে জড়িত বাকিদের খোঁজে তল্লাশি চলছে। এবার ঘটনাস্থল, পূর্ব বর্ধমানের মেমারি। 

আরও পড়ুন: 'বাংলায় আবাস যোজনা'য় মেলেনি বাড়ি, দুর্ঘটনার হাত থেকে বরাতজোরে রক্ষা পরিবারের

পুলিশ সূত্রে খবর, ধৃতেরা হল সুরঞ্জন বিশ্বাস, পার্থসারথি বিশ্বাস, কালীচরণ সাউ। মূলত অনলাইনের মাধ্য়মে চলত এই বেটিং চক্র। কাজে লাগানো হত বিভিন্ন অ্য়াপ ও ওয়েবসাইট। চট করে অচেনা কারও সঙ্গে ম্যাচ নিয়ে বাজি ধরত না ধৃতেরা। নির্দিষ্ট এলাকায় পরিচিতেরাই আইপিএল বেটিং-এ অংশ নিত। তদন্তকারী জানিয়েছেন, যারা ধরা পড়েছে, তাদের জেরা করে আরও বেশ কয়েকজন নাম জানা গিয়েছে। তবে তাঁদের এখনও ধরা যায়নি। 

আরও পড়ুন: সৌমিত্র খাঁ-কে নিয়ে জেলার নেতার বিরূপ মন্তব্য,আগুন জ্বালিও না বললেন সাংসদ

বর্ধমান সদরের এসিডিপিও আমিনুল ইসলাম খান জানিয়েছে, ধৃতদের কাছ যে মোবাইলগুলি পাওয়া গিয়েছে, তাতে কয়েকটি অ্যাপস ও ওয়েবসাইটে সন্ধান মিলেছে। এগুলি মূলত বেটিং করতে ব্যবহার করা হয়। আগ্রহীদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখাই শুধু নয়, এই অ্য়াপসের মাধ্যমে চলত আর্থিক লেনদেনও। উল্লেখ্য, দিন কয়েক আগে আইপিএল বেটিং চক্রের হদিশ মেলে হুগলিতেও। কোন্নগরের একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে আটজনকে গ্রেফতার করে উত্তরপাড়া থানার পুলিশ। উদ্ধার হয় নগদ এক লক্ষ পঁচিশ হাজার টাকা, দশটি মোবাইল ও বেশ কয়েকটি নোটবুকও।