অবশেষে মুর্শিদাবাদ হত্যাকাণ্ডের কিনারা পুলিশ। রাজনীতি বা বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক নয়, বরং আর্থিক লেনদেন নিয়ে গন্ডগোলের জেরেই খুন হতে হয়েছে সপরিবার শিক্ষক বন্ধুপ্রকাশ পালকে। ইতিমধ্যেই হত্যাকাণ্ডে মূল অভিযুক্ত সাগরদিঘির বাসিন্দা উৎপল বেহরাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। জেরায় খুনের কথা স্বীকারও করেছে অভিযুক্ত। 

পুলিশ সূত্রে খবর, বেআইনি অর্থলগ্নি সংস্থার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন বন্ধুপ্রকাশ পাল। তাঁর মাধ্যমেই ওই সংস্থায় টাকা রেখেছিলেন ধৃত উৎপলের বাবা। অভিযোগ, কিন্তু টাকা নিয়েও তার বিনিময়ে কোনও নথি দিচ্ছিলেন না ওই স্কুল শিক্ষক। এমন কী টাকা চাইলেও ফেরত দিচ্ছিলেন না বন্ধুপ্রকাশ। সেই রাগেই স্ত্রী, পুত্র- সহ ওই স্কুল শিক্ষককে খুন করে উৎপল। 

জিয়াগঞ্জে বাড়ি করলেও আগে সাগরদিঘিতে থাকতেন বন্ধুপ্রকাশ পাল। সেখানেই বাড়ি ধৃত উৎপলেরও। সেই সূত্রেই বন্ধুপ্রকাশের সঙ্গে আলাপ হয় ধৃত উৎপলের বাবার।