কৌশিক সেন, রায়গঞ্জ:  দীর্ঘ অচলাবস্থায় ইতি। আনলক পর্বে শেষপর্যন্ত বেসরকারি বাস চালু হয়ে গেল উত্তর দিনাজপুরে। সামাজিক দূরত্ব মেনে স্যানিটাউজার ও মাস্ক সহযোগে রায়গঞ্জ থেকে বিভিন্ন রুটে বাসে উঠলেন যাত্রীরা। তবে প্রথম দিন সংখ্যাটা ছিল অনেকটা কম। ধীরে ধীরে পরিবহণে স্বাভাবিক ছন্দ ফিরবে, আশা বাসমালিকদের।

আরও পড়ুন:হলদিয়ার সঙ্গে কলকাতার জলপথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন, আমফানে ৫ টনের জেটি জলের তলায়

তখনও করোনা সতর্কতায় পুরোদস্তুর লকডাউন চলছে রাজ্যে। গ্রিনজোনে বেসরকারি বাস চালু করার কথা ঘোষণা করেন মু্খ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই তালিকায় ছিল উত্তর দিনাজপুরও। কিন্ত তাতে কোনও লাভ হয়নি। কারণ, সরকারি শর্ত মেনে মাত্র ২০ জন যাত্রী নিয়ে বাস রাস্তায় নামাতে রাজি হননি মালিকরা। তাঁদের বক্তব্য ছিল, লকডাউনের জেরে এমনিতেই ব্য়বসা লাটে উঠেছে। সরকারি নিয়ম মেনে পরিষেবা চালু করলে, লোকসান আরও বাড়বে। এখানেই শেষ নয়, প্রয়োজনে সরকারকে বাস অধিগ্রহণ করে, পরিষেবা চালু করারও প্রস্তাব দেওয়া হয় রায়গঞ্জ মোটর ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের তরফে। এরপরই তড়িঘড়ি জেলায় সরকারি বাস চালু করে দেয় উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থা বা এনবিএসটিসি।

আরও পড়ুন: পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে ধুন্ধুমারকাণ্ড, তমলুকে সংঘর্ষে জড়ালেন স্থানীয়রা

চলতি মাস থেকে এ রাজ্যে লকডাউন অনেক শিথিল করে দিয়েছে সরকার। আনলক পর্বে পরিবহণের ক্ষেত্রে আরও ছাড় দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা, এবার থেকে বাসে যতগুলি সিট, ততজন যাত্রীই উঠতে পারবেন। তবে অতিরিক্তি যাত্রী নেওয়া যাবে না। অর্থাৎ বাসে কেউ দাঁড়িয়ে থাকতে পারবেন না।  উত্তর দিনাজপুর বাস-মিনিবাস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক প্লাবল প্রামাণিক জানিয়েছেন, শনিবার থেকে শিলিগুড়ি, বালুরঘাট, মালদহ-সহ সমস্ত রুটে বেসরকারি বাস পরিষেবা চালু হল।  বেসরকারি পরিবহণ সচল হওয়ায় খুশি যাত্রীরা।