Asianet News BanglaAsianet News Bangla

জলপাইগুড়িতে উদ্ধার হল লাল কোরাল কুকড়ি সাপ, বাড়ির ভেতরে সাপ দেখে আতঙ্কে বাসিন্দারা

জলপাইগুড়ি শহর সংলগ্ন কাঠের ব্রিজ এলাকার এক জনের বাড়ি থেকে উদ্ধার করা হয় এই লাল কোরাল কুকড়ি সাপটিকে। সাধারণ মানুষের মধ্যে সাপটিকে নিয়ে ভীতি থাকলেও উদ্ধারকারী পরিবেশ প্রেমী দেবার্ঘ্য রক্ষিত জানিয়েছেন, এটি সম্পূর্ণ নির্বিষ প্রজাতির সাপ।

Rare species of snake recovered in Jalpaiguri, Click on the link for detailed report
Author
Kolkata, First Published Jul 22, 2022, 11:11 AM IST

উত্তরবঙ্গে প্রবল বর্ষায় মানুষের সঙ্গে সঙ্গে ভিজছে অরণ্যও। বন্য জন্তু জানোয়ারের পাশাপাশি খামখেয়ালি হতে দেখা যায় সরীসৃপদেরও। এই আবহাওয়ায় বহু প্রাণী নিজেদের বসবাসের গণ্ডি ছেড়ে বেরিয়ে আসে লোকালয়ে। জঙ্গল সংলগ্ন গ্রামগুলির বাসিন্দারা অবশ্য এই বিষয়ে অনেকটাই অভিজ্ঞ। গতকাল রাতে তেমনই এক ঘটনার সাক্ষী থাকলেন জলপাইগুড়ির কাঠের ব্রিজ সংলগ্ন এলাকার মানুষ।

 বুধবার গভীর রাতে জলপাইগুড়ি শহরের কাছাকাছি কাঠের ব্রিজ এলাকায় এক ব্যক্তির বাড়িতে ঢুকে পড়ল একটি লাল রঙের মাঝারি আকারের সাপ। অত রাতে স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়ায় ঘরের ভেতর ওই অদ্ভুত রঙের সাপটি দেখতে পেয়ে বেশ খানিকটা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন ওই ব্যক্তির পরিবারের লোকজন। অবশেষে পরিবেশ প্রেমী দেবার্ঘ্য রক্ষিতের তৎপরতায় রাতের অন্ধকারেই বাড়ির মধ্যে থেকে উদ্ধার করা হয় এই সাপটিকে।

উদ্ধারকারী পরিবেশকর্মী দেবার্ঘ্য জানিয়েছেন, লাল রঙের এই সাপটি দেখতে অদ্ভুত বলে এটিকে দেখে মানুষের মধ্যে ভীতির সঞ্চার হলেও প্রকৃতপক্ষে এটির প্রধানতম বৈশিষ্ট্য হল যে, এটি সম্পূর্ণ নির্বিষ প্রজাতির একটি সাপ। এর দ্বিতীয় বৈশিষ্ট্য হল যে, এটি একটি বিরল এবং বিলুপ্তপ্রায় প্রজাতির সাপ। সব জায়গায় এর দেখা মেলা মুশকিল। জলপাইগুড়িতেই এর আগে বেশ কয়েকবার এর দেখা পাওয়া গেছে এবং সেসময় উদ্ধারও করা হয়েছে। এটির দেখা পাওয়া যায় প্রধানত জলপাইগুড়ি, কুচবিহার ও আসামের কিছু কিছু অঞ্চলে। ইংরেজিতে এর নাম ‘কোরাল রেড কুকরি’ হলেও বাংলায় এটিকে ডাকা হয় ‘রক্ত প্রবাল’ নামে। 

মনে করা হয় যে, এই রক্ত প্রবাল সাপগুলি নিশাচর প্রাণী এবং এরা অধিকাংশ সময় মাটির নিচে জীবনধারণ করে থাকে। এদের দেহ আঁশ দ্বারা ঢাকা থাকে এবং এরা মাটি খুঁড়তে পারে বলে ধারণা করা হয়। খুব সম্ভবত কেঁচো ও লার্ভা খেয়ে কোরাল রেড কুকরি সাপেরা জীবন ধারণ করে। ১৯৭২ সাল থেকে বন্যপ্রাণ সংরক্ষণ আইন অনুযায়ী ভারতে লাল কোরাল কুকরি সাপকে সংরক্ষিত প্রজাতি হিসেবে বর্ণিত করা হয়েছে।

জলপাইগুড়ি শহরের কাছাকাছি কাঠের ব্রিজ এলাকা থেকে উদ্ধার করা ওই সাপটিকে আজ সকালেই বনকর্মীদের হাতে তুলে দিয়েছেন উদ্ধারকারী পরিবেশ কর্মীরা। 

আরও পড়ুন- এ কি কাণ্ড! মাছের বদলে জালে উঠলো বিশালকৃতি অজগর সাপ
আরও পড়ুন- অজান্তেই বিষ ঢালছে কালাচ, সাপের কামড়ে সচেতনতা ও সতর্কতাই একমাত্র রক্ষাকবচ
আরও পড়ুন- কিং কোবরা ভেবে দাঁড়াশ সাপ নিয়ে হুলুস্থুলকাণ্ড চা-বাগানে

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios