Asianet News Bangla

বেঁচে থেকেও রেশন তালিকায় 'মৃত' মালদহের বৃদ্ধা, খতিয়ে দেখার আশ্বাস BDO-র

  • জীবিত বৃদ্ধা মৃত বলে ঘোষিত রেশন তালিকায় 
  •  গ্রামবাসীদের কম পরিমাণ রেশন দেওয়ার অভিযোগ
  • এই নিয়ে অভিযোগ দায়ের হয়েছে বিডিওর কাছে 
  • ঘটনাটি ঘটেছে মালদহ জেলার হরিশচন্দ্রপুর এলাকায়
     
Ration Dealer have been accused of not giving rations in Malda RTB
Author
Kolkata, First Published Jul 2, 2021, 6:12 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp


  জীবিত রয়েছেন বৃদ্ধা। কিন্তু মৃত বলে ঘোষিত রেশন তালিকায়। মিলছে না রেশন। মৃত বলে ঘোষণা করার অভিযোগ রেশন ডিলারের বিরুদ্ধে। এই নিয়ে অভিযোগ দায়ের বিডিওর কাছে। খতিয়ে দেখার আশ্বাস বিডিওর। ঘটনাটি ঘটেছে মালদহ জেলার হরিশচন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লকের অন্তর্গত মহেন্দ্রপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়। 

আরও পড়ুন, 'স্বৈরাতান্ত্রিক শাসন কায়েমের চেষ্টা করছে সরকার', বিস্ফোরক শুভেন্দু

জানা গিয়েছে, ওই এলাকার বাসিন্দা জেলেখা বেওয়া। বয়স ৮০ বছর। দিব্যি হেঁটে চলে বেড়াচ্ছেন। আগে রেশন পেতেন। কিন্তু কয়েক সপ্তাহ ধরে পাচ্ছেন না রেশন। ওই এলাকার রেশন ডিলার জহুর আহমেদ। অভিযোগ ঐ ডিলার বৃদ্ধাকে রেশনের তালিকায় মৃত বলে ঘোষণা করেছেন। এছাড়াও গ্রামবাসীরা ওই ডিলারের বিরুদ্ধে কম পরিমাণ রেশন দেওয়ার অভিযোগ তুলছেন। সরকার যতটা রেশন পাঠাচ্ছে ততটা দেওয়া হচ্ছে না। ১ কেজি কম করে চাল, গম দেওয়া হচ্ছে। এমনটাই অভিযোগ গ্রামবাসীদের। এদিকে অভিযোগ খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন খাদ্য সরবরাহ দপ্তরের ইন্সপেক্টর। আর রেশন ডিলারের দাবি লিস্টে ওই বৃদ্ধার নাম দেখাচ্ছিলো না। তাই তিনি বলেছেন। আর সরকারের সার্কুলার অনুযায়ী রেশন দেন।

আরও পড়ুন, সাতসকালেই ঘুম ভাঙালেন রাজ্যের, প্রাতঃভ্রমণে বেরিয়ে প্রতারক দেবাঞ্জন ইস্যুতে বিস্ফোরক দিলীপ

ওই বৃদ্ধার ছেলে জালাল উদ্দিন বলেন,'আমার মা বেঁচে আছে। কিন্তু দুই সপ্তাহ ধরে রেশন পাচ্ছে না। রেশন ডিলার বলেছে তালিকায় তার মায়ের নাম নেই।এছাড়া ওই ডিলারের বিরুদ্ধে কম খাদ্যদ্রব্য দেওয়ার অভিযোগ তোলেন।'আলাউদ্দিন নামে স্থানীয় বাসিন্দা বলেন,"ওই বৃদ্ধা বেঁচে আছেন।কিন্তু মৃত ঘোষণা করে তাকে রেশন দেওয়া হচ্ছে না।এদিকে প্রত্যেককেই পরিমাণের থেকে এক কেজি করে কম রেশন দেওয়া হচ্ছে।সরকার তো সঠিক পরিমাণ রেশন পাঠাচ্ছে।আমাদের কম দেওয়া হবে কেন' বলে প্রশ্ন তোলেন।

আরও পড়ুন, 'নথিতে ধনখড় তাহলে কে', কী সেই 'জৈন হাওয়ালা মামলা', তৃণমূলের রহস্যভেদে চাপের মুখে রাজ্যপাল

অভিযুক্ত রেশন ডিলার জহুর বলেন,'লিস্টে ঐ বৃদ্ধার নাম দেখাচ্ছে না।তাই আমি রেশন দিতে পারছি না।মৃত ঘোষণা করার আমি কেও না।আর মাল যেরকম আসছে সেই ভাবে রেশন দেওয়া হচ্ছে।বাইরে সার্কুলার দেওয়া থাকে।'খাদ্য সরবরাহ দপ্তরের ইন্সপেক্টর রিঙ্কু বিশ্বাস বলেন,"অভিযোগ পেয়েছি।খতিয়ে দেখা হবে।কিন্তু কম রেশন দেওয়ার অভিযোগ আমি পাইনি।তবে যখন শুনলাম স্বতঃপ্রণোদিত ভাবে আমি নিজে দেখব।রেশন ডিলার কাউকে মৃত ঘোষণা করতে পারে না।ঘটনাটা কি হয়েছে সঠিক ভাবে দেখতে হবে। করোনা আবহে লকডাউন চলছে।এই মুহূর্তে সরকারের পক্ষ থেকে যে রেশন দেওয়া হয় তা সাধারন গরিব পরিবারের জন্য খুব প্রয়োজনীয়। তাই তাদের অধিকারের থেকে কম রেশন দেওয়া অপরাধ। ব্যাপারটি প্রশাসনের খতিয়ে দেখা উচিত।'

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios