পুরুষ বা মহিলাদের জন্য আলাদা ওয়ার্ড আছে। কিন্তু তৃতীয় লিঙ্গের কোনও মানুষ যদি হাসপাতালে আসেন, তাহলে তাঁকে কোনও ওয়ার্ডে ভর্তি করা হবে? এ রাজ্যে এবার তৃতীয় লিঙ্গ বা ট্রান্সডেন্ডারদের জন্যও আলাদা ওয়ার্ড চালু হল সরকারি হাসপাতালে। নজির গড়ল দক্ষিণ দিনাজপুরের বালুরঘাট জেলা হাসপাতাল। 

আর পাঁচজন মানুষের মতো ট্রান্সডেন্ডারদের সুস্থ ও স্বাভাবিক জীবনযাপনের অধিকারকে স্বীকৃতি দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় এমন মানুষের সংখ্যা তিনশো। কিন্তু ঘটনা হল, বালুরঘাট জেলা হাসপাতালে তাঁদের চিকিৎসা করতে গিয়ে সমস্যা পড়তে হয় কর্তৃপক্ষকে। কারণ, হাসপাতালে ট্রান্সজেন্ডারের জন্য আলাদা কোনও ওয়ার্ড ছিল না। সেক্ষেত্রে রোগীকে পুরুষ না মহিলা কোনও ওয়ার্ডে ভর্তি করতে হবে, তা বুঝতে পারতেন না হাসপাতালের কর্মী ও চিকিৎসক। অবশেষে সমস্যার সমাধান হল।  দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা আইন বিভাগ ও স্বাস্থ্য দপ্তরের যৌথ উদ্যোগে ট্রান্সজেন্ডারদের জন্য আলাদা ওয়ার্ড চালু হল বালুরঘাট জেলা হাসপাতালে।

আরও পড়ুন: অপারেশন থিয়েটার ভাসছে শৌচাগারের জলে, বাঁকুড়া মেডিক্যাল কলেজে বিপাকে রোগীরা

মঙ্গলবার হাসপাতালে চার শয্য়ার এই ওয়ার্ডটির উদ্বোধন করলেন বালুরঘাট আদালতের সি জিএম  সুব্রত ঘোষাল ও জেলা মুখ্যস্বাস্থ্য আধিকারিক সুকুমার দে। অনুষ্ঠানে তৃতীয় লিঙ্গ ও ট্রান্সজেন্ডারদের প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বনি রায় ও ত্রিধা দাস। ছিলেন হাসপাতালের সুপারও। উল্লেখ্য, জেলা হাসপাতালগুলি তো বটেই, খাস কলকাতার কোনও সরকারি হাসপাতালেও তৃতীয় লিঙ্গ বা ট্রান্সজেন্ডারের জন্য আলাদা ওয়ার্ড নেই।