জমি নিয়ে দীর্ঘদিনের পারিবারিক বিবাদ। আর তারজেরেই গুলি চলল গভীর রাতে। গুলিবিদ্ধ একই পরিবারের সাতজন সদস্য। আহতেরা ভর্তি কলকাতার বিভিন্ন হাসপাতালে।  ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণপুরের রাঘবপুর গ্রামে। তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুরের পানাকুয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের রাঘবপুর গ্রামে থাকেন হাজরা পরিবারের সদস্যরা। দশ কাটা জমি নিয়ে পরিবারে দীর্ঘদিন ধরেই অশান্তি চলছিল বলে জানা গিয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের বক্তব্য,  শনিবার গভীর রাতে জমি নিয়ে পরিবারের সদস্যদের মধ্যে বিবাদ চরম আকার নেয়।  শুরু হয় বচসা। রাতের গুলির শব্দ পেয়ে যখন আশেপাশের লোকেরা বাইরে বেরিয়ে আসেন, তখন দেখেন, গুলিবিদ্ধ অবস্থা রয়েছে একই পরিবারের সাতজন সদস্য। গুলিবিদ্ধ হয়েছেন রথীন হাজরা, তাঁর স্ত্রী শিখা হাজরা, ছেলে তন্ময় হাজরা, রথীনের ভাই শশাঙ্ক হাজরা, ভাইপো শুভময়, মৃগাঙ্গ ও সুকমল।  খবর দেওয়া হয় বিষ্ণুপুর থানায়। গুলিবিদ্ধ সাতজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। আহতদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গিয়েছে।

 পুলিশের বক্তব্য, একপক্ষের লোকেরা গুলি চালিয়েছেন, আর অন্য পক্ষের লোকেরা  গুলিবিদ্ধ হয়েছেন, ব্যাপারটি কিন্তু তেমন নয়। বরং ঘটনার সময়ে দুইপক্ষের লোকের একে অপরকে লক্ষ্য গুলি চালিয়েছেন। কিন্তু বিবদমান দুই পক্ষের লোকেরা আগ্নেয়াস্ত্র পেলেন কোথা থেকে? তা খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা। এদিকে এই ঘটনায় আতঙ্কিত বিষ্ণুপুরের রাঘবপুর গ্রামের বাসিন্দারা। ঘটনাস্থলে মোতায়েন বিশাল পুলিশবাহিনী। পুলিশ সুপার এস মেলভা মুরুগান জানিয়েছেন, অভিযুক্তদের সন্ধানে তল্লাশি চলছে।