কন্যাশ্রী প্রকল্পে কি কারচুপি করছেন খোদ প্রধান শিক্ষিক? অবিলম্বে অনুদান চালুর দাবিতে এবার পথ অবরোধ করলেন দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়ারা। ঘটনাটি হুগলির সিঙ্গুরে।

আরও পড়ুন: ত্রিকোণ প্রেমের পরিণতি, প্রেমিকার হাতে 'খুন' হয়ে গেলেন নদিয়ার যুবক

রাজ্যে পালবদলের পর  স্কুলের গরিব ছাত্রীদের সাহায্য করার জন্য কন্যাশ্রী প্রকল্প চালু করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। স্কুল পড়ুয়াদের বটে, এই প্রকল্পের কলেজের ছাত্রীদের অনুদান দেয় রাজ্য সরকার।  বাংলার কন্যাশ্রী প্রকল্পকে স্বীকৃতি দিয়েছে রাষ্ট্রসংঘও।  কিন্তু যাঁদের জন্য কন্যাশ্রী, সেই ছাত্রীরা আদৌ উপকৃত হচ্ছে তো? হুগলির সিঙ্গুর মহামায়া উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধেই পড়ুয়াদের বঞ্চনার অভিযোগ উঠেছে।

আরও পড়ুন: প্রেমের পথে বাধা জাতপাত, প্রেমিকের সঙ্গে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী তরুণী

স্কুলের দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের অভিযোগ, বার্ষিক পরীক্ষা শেষ হওয়ার আগে তাঁদের কন্যাশ্রী আইডি ট্রান্সফার বা অন্য নামের করে দিচ্ছেন প্রধানশিক্ষিক। ফলে সরকারি অনুদান পাওয়া যাচ্ছে না। ফের নতুন ফর্ম ফিলাপ করিয়ে কন্যাশ্রী প্রকল্পে নাম নথিভুক্ত করার দাবিতে সোমবার সকালে বৈদ্যবাটি-তারকেশ্বর রাজ্য সড়ক অবরোধ করেনসিঙ্গুর মহামায়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা। প্রায় এক ঘণ্টা ধরে চলে অবরোধ। শেষপর্যন্ত পুলিশের আশ্বাসের অবরোধ তুলে নেয় বিক্ষোভকারীরা। এদিকে এ বিষয়ে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক আশিষ সিনহার সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তিনি ফোন ধরেননি। তবে ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসার পর প্রধান শিক্ষক স্কুলে আসছেন না বলে জানা গিয়েছে।