এবার ভাটপাড়া প্রসঙ্গে সর্বদলীয় বৈঠকের দাবি জানিয়েছেন সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী। তাঁর দাবি, ভাটপাড়ার পরিস্থিতি যেভাবে দিন দিন অশান্ত হয়ে উঠেছে তাতে অবিলম্বে মুখ্যমন্ত্রীর উচিত একটি সর্বদলীয় বৈঠকের ডাক দেওয়া। ভাটপাড়ার পরিস্থিতি ক্রমশই হাতের বাইরে চলে যাচ্ছে বলে মত তাঁর। তাই তাঁর দাবি মুখ্যমন্ত্রীর উচিত বিষয়টি নিয়ে সব রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করা।

প্রসঙ্গত, নির্বাচনের পর থেকেই প্রবল রাজনৈতিক উত্তেজনা ছড়িয়েছে উত্তর চব্বিশ পরগণার ভাটপাড়ায়। রাজনৈতিক সংঘর্ষের জেরে জগদ্দল এলাকায় জারি হয়েছে ১৪৪ ধারা। প্রসঙ্গত ভাটপাড়ায় নতুন থানার উদ্বোধন হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তার আগেই গোটা এলাকা জুড়ে চলতে থাকে দুষ্কৃতীদের তাণ্ডব। 

ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছোলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ বেঁধে যায় দুষ্কৃতীদের। পুলিশ ও দুষ্কৃতীদের মাঝে পড়ে ইতিমধ্যেই মৃত্যু হয়েছে বেশ কয়েকজনের সেইসঙ্গে গুরুতরভাবে যখম হয়েছেন আরও অনেকে। ভাটপাড়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর। 

বিজেপি নেতা মুকুল রায় দাবি করেছেন ভাটপাড়ায় অশান্তিতে মৃত প্রত্যেকেই তাঁদের দলের সমর্থক। ভাটপাড়ায় বিজেপির জয়কে মেনে নিতে পারছেন না বলেই মুখ্যমন্ত্রী বারবার ভাটপাড়াকে অশান্ত করে তুলছে বলে দাবি করেন তিনি।

সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী আর দাবি করেছেন যে, মুখ্যমন্ত্রী যদি সর্বদলীয় বৈঠকে না বসতে চান তাহলে তিনি যেন তাঁর পরাজয় স্বীকার করে নেন। এবং তিনি আরও বলেন, মুখ্যমন্ত্রী যেন এও স্বীকার করে নেন যে, ভাটপাড়ার পরিস্থিতিকে শান্ত করতে তিনি ব্যর্থ।