ভারতীয় সংস্কৃতিতে সুখ ও সমৃদ্ধির প্রতীক হিসাবে তুলে ধরা হয় স্বস্তিক চিহ্নকে। পাশাপাশি মনে করা হয়, স্বস্তিক অত্যন্ত পবিত্র একটি চিহ্ন। বলা হয়, এই চিহ্ন কল্যাণের প্রতীক এবং কোনও মঙ্গল অনুষ্ঠানে এই চিহ্ন আঁকা হয়ে থাকে। তবে শুধু হিন্দু ধর্মই নয়, বৌদ্ধ এবং জৈন ধর্মাবলম্বীদের মধ্যেও স্বস্তিক চিহ্ন খুবই পবিত্র বলে মনে করা হয়। 

এবার এই স্বস্তিক থিমেই গড়ে উঠবে জগাছা ইউথ কেয়ারের পুজো। হাওড়া জেলার কোনা এক্সপ্রেসওয়ের কাছে এই পুজো মূলত জগাছা গ্রামবাসীবৃন্দ নামেই বিশেষ পরিচিত। প্রতি বছরেই মহা সমারোহে শারদোৎসব পালন করে আসছে জগাছা ইউথ কেয়ার। তবে এবারের প্রতিমার ক্ষেত্রে তাদের বিশেষ আকর্ষণ হল এই প্রতিমাটি তৈরি করা হচ্ছে ছৌ-এর মুখোশের আদলে। অভিনব ভাবনা নিয়ে এই পুজোর মূর্তি গড়ার দায়িত্বে রয়েছেন প্রতিমা শিল্পী শঙ্কর পাল। মণ্ডপসজ্জার দায়িত্বে রয়েছেন পবিত্র চক্রবর্তী। 

আরও পড়ুন- নচিকেতার গানই ভাবনা, মালদা দিলীপ স্মৃতি সংঘে এবার থিম বৃদ্ধাশ্রম

আরও পড়ুন- দূষণের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে ব্লকপাড়া সর্বজনীন দুর্গোৎসবের এবারের থিম 'আনন্দলোকে আনন্দময়ী'

আরও পড়ুন- "নবপত্রে সনাতনী" থিমে সাজছে নিউ জলপাইগুড়ির সেন্ট্রাল কলোনির পুজো

তবে পুজোর মরশুমে দুর্গাপুজো ছাড়াও বিভিন্ন সমাজসেবামুলক কাজও তাঁরা করে থেকেন। অসহায়দের বস্ত্রবিতরণ-এর মতো সমাজসেবামুলক কাজের পাশাপাশি বিভিন্ন লোকসংস্কৃতি অর্থাৎ ছৌনাচ-এর মতো গ্রাম বাংলার পুরনো ঐতিহ্যকে তুলে নিয়ে এসেছে জগাছা ইউথ কেয়ার। সবমিলিয়া পুজোর থিম এবং ভাবনা-চিন্তায় জগাছা ইউথ কেয়ার এক অভিনব প্রয়াসের পথে।