করোনাভাইরাস মহামারি গোটা মানব সভ্যতাকে প্রায় অস্তিত্ব রক্ষার লড়াইয়ের মুখে ফেলে দিয়েছে। কিন্তু, তারপরেও হিংসা, ভেদাভেদ, অপরাধ দূর হচ্ছে না সমাজ থেকে। রবিবার সকালে মুর্শিদাবাদ জেলায় দুই পরিবারের মধ্যে বিবাদ এমন পর্যায়ে পৌঁছল, যে রীতিমতো গ্লামের মধ্যেই গুলি বিনিময় চলল দুই গোষ্ঠীর মধ্যে। আর বিবদমান দুই পক্ষের সেই গোলাগুলির মধ্যে পড়ে গিয়ে প্রাণ গেল এক নিরীহ কিশোরের।

মৃত কিশোরের নাম সাজিবুল ইসলাম (১৬)। মুর্শিদাবাদের ইসলামপুর থানার সীতানগর গ্রামে তার বাড়ি। জানা গিয়েছে রবিবার সকালে এলাকার আরও কয়েকজন যুবকের সঙ্গে সে সাইকেলে চেপে চাষের কাজে যাচ্ছিল। ডোমকল থানার জিতপুর এলাকায় আসতেই দুইপক্ষের গুলি বিনিময়ের মধ্যে পড়ে যায় তারা। সেই সময়ই আচমকা গুলিবিদ্ধ হয় সাজিবুল নামে ওই কিশোর। তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছিল। কিন্তু, চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

নিরপরাধ কিশোরের মৃত্যুর ঘটনায় গোটা এলাকার আবহাওয়া এখন উত্তপ্ত। স্থানীয়দের দাবি, জিতপুর নতুনপাড়া গ্রামে দুই পরিবারের মধ্যে বিবাদ থেকেই এই পরিণতি হল। তাদের অভিযোগ, বিবদমান দুই পরিবারই বাইরে থেকে দুষ্কৃতী ভাড়া করে এনেছে। রবিবার ভোর থেকেই সেই দুই দুষ্কৃতী দলের মধ্যে গুলি বিনিময় শুরু হয়েছিল।

ডোমকলের এসডিপিও ফারুক মহম্মদ চৌধুরী-র নির্দেশে উপদ্রুত এলাকায় এখন বিরাট পুলিশবাহিনী প্রহরায় রয়েছে। এই বিষয়ে মুর্শিদাবাদের পুলিশ সুপার কে কেশরী রাজকুমার বলেছেন, 'ঘটনার কারণ এখনও স্পষ্ট নয়। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। তদন্তের স্বার্থে এর বেশী এখনই কিছু বলা সম্ভব নয়'।