সঞ্জীব কুমার দুবে, পূর্ব মেদিনীপুর: পুজোয় অনেকেই ঘুরতে যেতে পছন্দ করে। আর সেই কারণেই পুজোর সময় পর্যটন কেন্দ্র গুলিতে ভিড় থাকে প্রতি বছরই। এবছরও সেই সম্ভবনা থেকেই যাচ্ছে। তারপরে দীর্ঘ লকডাউনে সবাই প্রায় হাঁপিয়ে উঠেছে। আর সেই লকডাউন কাটিয়েই এখন ক্রমশ স্বাভাবিক ছন্দে ফিরছে সব কিছুই। তাই এবার পুজোয় ভিড় হওয়ার সম্ভবনা থেকেই যাচ্ছে পর্যটন কেন্দ্র গুলিতে। অন্যদিকে দীঘা কলকাতার পার্শবর্তী হওয়ায় সেখানে সারা বছরই কম বেশি ভিড় লেগেই থাকে। লকডাউন কাটিয়ে ইতিমধ্যেই সেখানে সাধারণ মানুষের ভিড় শুরু হয়েছে। পুজোয় যে সেই পরিমাণটা বাড়তে পারে সেই আশঙ্কাই করছে প্রশাসন। কারণটা অবশ্য করোনা।

এখনও করোনা আবহ একবারেই কাটেনি। বরং প্রতিদিন, প্রতি নিয়ত বৃদ্ধি পাচ্ছে আক্রান্তের সংখ্যা। আর সেই দুশ্চিন্তার কথা ভেবেই দীঘায় প্রশাসনিক বৈঠক করলেন পূর্ব মেদিনীপুর জেলাশাসক পার্থ ঘোষ, পুলিশ সুপার সুনীল কুমার যাদব, পূর্ব মেদিনীপুর জেলা সভাধিপতি দেবব্রত দাস সহ প্রশাসনিক আধিকারিকেরা। ওই বৈঠকে জেলার শাসক পার্থ ঘোষ জানান যে এবছর পুজোতে বেশি সংখ্যায় পর্যটক আসতে পারে দীঘায়। কারণ অনেক পর্যটকরা বাইরে যেতে পারছেন না। তাই দীঘায় পর্যটকদের আসার সম্ভবনা থেকেই যাচ্ছে। আর সেই কারণেই আগে থেকই দীঘার হোটেল অ্যাসিস্ট্যান্টদের কড়া পদক্ষেপ এবং ট্রাফিক এর বড় ভূমিকা পালন করতে হবে তিনি জানান। তবে তিনি আশা রাখছেন পর্যটন কেন্দ্রে পুজো মরশুমে ভীড় আয়ত্বে আনা যাবে। এছাড়াও সাধারণ মানুষদের জন্য সঠিক ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব হবে যাতে এর থেকে সংক্রমণ আরও না ছড়িয়ে পড়তে পারে।