তনুজ জৈন- একই গাছ থেকে উদ্ধার দুই যুবকের ঝুলন্ত দেহ। এর মধ্যে একজন উচ্চমাধ্যমিকের ব্লক টপার হওয়া মেধাবী ছাত্র। এই ঘটনায় স্বাভাবিক ভাবেই চরম উত্তেজনা ছড়িয়েছে মালদা জেলার মোথাবাড়ি থানার অন্তর্গত  উত্তর লক্ষীপুরের অঞ্চলের কালাচাঁদ টোলা গ্রামে।  মৃত্যুর কারণ নিয়ে রীতিমত ধোঁয়াশায় পুলিশ ও পরিবার। 

শুক্রবার সকালে  তাদের বাড়ি থেকে তিন- চারশো মিটার দূরে আমবাগানে একটি গাছে দুই যুবকের ঝুলন্ত দেহ দেখতে পান এলাকার মানুষজন। সঙ্গে সঙ্গে খবর দেওয়া হয় পুলিশকে। এলাকায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। 


মৃতদের পরিবারের অভিযোগ কে বা কারা যুবককে খুন করে এভাবে ঝুলিয়ে দিয়েছে। মৃত দুই যুবকের নাম  মনোজ মণ্ডল (১৮) ও  চৈতন্য মণ্ডল।(১৭)। পরিযায়ী শ্রমিকের পরিবার থেকে উঠে আসা মনোজ মণ্ডল ৪৯১ নম্বর পেয়ে কালিয়াচক দুই নম্বর ব্লকের মধ্যে প্রথম হয়। 
গোটা মোথাবাড়ি এলাকায় প্রথম হয়েও উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের চরম বাধা হয়ে উঠে তার দারিদ্রতা। 

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন মনোজ ও চৈতন্য দুজনেই খুব ভালো বন্ধু ছিল। এর মধ্যে মনোজ মণ্ডল পড়াশোনায় খুবই ভালো ছিল। শুক্রবার সকালবেলা  সানাউল হক নামে এক ব্যক্তি জমিতে ভুট্টা সংগ্রহ করতে যাওয়ার সময় বাগানে এই দুই যুবকের ঝুলন্ত দেহ দেখতে পান। তিনিই ওই যুবকের গ্রামে খবর দেন। 

খবর পেয়ে তাদের পরিবারের লোক এবং গ্রামবাসী ছুটে এসে দেখে এই দুই যুবকের দেহ একটি গাছে ঝুলে রয়েছে। পরিবারের লোক মোথাবাড়ি থানায় খবর দেয়। মোথাবাড়ি থানার ওসি মৃণাল চ্যাটার্জি সহ পুলিশ বাহিনী এসে দেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায়। 

কে বা কারা এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত রয়েছে এই নিয়ে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। মোথাবাড়ি থানার পুলিশ তদন্তে নেমেছে। ময়নাতদন্তের জন্য দেহগুলি কে মালদা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। গোটা এলাকায় শোকের ছায়া নেমেছে।