বাপের বাড়ির পাশ থেকেই গৃহবধূর বিবস্ত্র ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার। ঘটনাটি ঘটে দৌলতাবাদ থানা এলাকায়। মৃতা মহিলার নাম সঞ্জিলা খাতুন(২১)। বৃহস্পতিবার সকালে গ্রামবাসীরা মহিলার দেহ বিবস্ত্র অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন, তাঁরই বাপের বাড়ির পাশের আমবাগানে। মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে তারাই থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে মহিলার মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। এই ঘটনা ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়ায় গোটা এলাকায়। 

স্থানীয় সূত্রে খবর, বছরখানেক আগে সাগর পাড়া থানার অন্তর্গত কাজীপাড়া এলাকার মিনারুল শেখ এর সঙ্গে বিয়ে হয় সঞ্জিলার। স্বামী ঠিকা শ্রমিক এর কাজ করে। তাই কর্মসূত্রে কেরালায় থাকে স্বামী মিনারুল। স্বামী না থাকায় বাবার বাড়িতেই থাকেন সঞ্জিলা। আর তারই বিবস্ত্র মৃতদেহ ওই দিন গ্রামবাসীরা দেখতে পান। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়ায় গোটা এলাকায়। তবে এই ঘটনায় এখনও গ্রেফতার করা হয়নি কাওকেই। এই নিয়েই এখন বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেছে এলাকার বাসিন্দারা। ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে লোকাল থানার পুলিশ। এ বা কারা এই খুন করেছে তাই নিয়েই এখন দানা বেধেছে রহস্য।