কলকাতা শহরের বুক থেকে গ্রেফতার হয়েছে আইএস মদতরপুষ্ট চার জঙ্গি। ধৃতদের তিনজন বাংলাদেশি হলেও, একজন এই রাজ্যেরই বাসিন্দা। অর্থ সংগ্রহ ও মতাদর্শ ছড়িয়ে সাহায্য করার অভিযোগে অভিযুক্ত এই ব্যক্তির পরিচয় এবার হাতে এল। জেএমবি ও আইএস জঙ্গি  রবিউল ইসলামের বাড়ি বীরভূমের পাইকর থানার নুতনগ্রামে । সে গ্রামে রাজমিস্ত্রির কাজ করত।

এই ব্যাক্তির বাবার দাবি, গত ১৩ জুন কয়েক জন তাঁকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। বলে হাওড়ার উলুবেড়িয়ায় তাকে বাড়ি নির্মণের জন্য যেতে হবে। সেই মতো তাদের সঙ্গে ১৩ জুনই নতুনগ্রামের বাড়ি থেকে উলুবেড়িয়ার উদ্দেশ্যে বের হয় রবিউল । তার বাবা এরজাহান শেখ আরও জানান, ১৪ জুন রাত্রি এগারোটা নাগাদ শেষ বার কথা হয় রবিউলের সঙ্গে । তারপর  আর তার সঙ্গে যোগোযোগ হয়নি। মোবাইল সুইচ বন্ধ হয়ে ছি । এতদিনপর ছেলে বাড়ি না ফেরায় গত ২৩ জুন পাইকর থানায় ছেলের নিখোঁজ ডায়রি করে পরিবার। পরে আজ তাঁরা জানতে পারে রবিউলকে আতঙ্কবাদী বলে পুলিশে ধরেছে । চৌদ্দ বছর আগে গ্রামেই বিয়ে হয় রবিউলের। বর্তমানে ৯ ও ১২ বছরের দুটি কন্যা  সন্তান আছে তার। সে গ্রামে রাজমিস্ত্রির কাজ করত।

প্রসঙ্গত ,কলকাতা পুলিশের স্পেশাল টাস্ক ফোর্স বা এসটিএফ গোপন সূত্রে খবর পেয়ে সোমবার প্রথমে শিয়ালদহ স্টেশনের কাছে পার্কিং লট থেকে দুই জঙ্গিকে গ্রেফতার করে। ধৃতদের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া একটি মোবাইল ফোনে জেহাদি ভিডিও, ছবি-সহ নানা তথ্য পাওয়া গিয়েছে বলে জানিয়েছ এসটিএফ।