আশিষ মণ্ডল, বীরভূম: ' এলাকায় পেলে অর্ধেক চুল কামিয়ে দেওয়া হবে।' বিজেপি নেতা রাহুল সিনহাকে এবার বেনজির ভাষায় আক্রমণ করলেন তৃণমূলের বীরভূম জেলার সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। বিতর্ক তুঙ্গে রাজনৈতিক মহলে।

আরও পড়ুন: শহিদ দিবসের সভায় যোগ দেওয়ার পর এল পজিটিভ রিপোর্ট, করোনায় আক্রান্ত আরও এক তৃণমূল বিধায়ক

করোনা আতঙ্কের মাঝেই কি চলছে পুরভোটের প্রস্তুতি? বীরভূম জেলার বিভিন্ন ব্লকে তৃণমূল কর্মীদের নিয়ে সম্মেলন হচ্ছে নিয়মিত।  বুধবার বিকেলে রামপুরহাট ২ নম্বর ব্লকের কর্মীদের নিয়ে সম্মেলন হয় তারাপীঠের তারা উদ্যানে। সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বোলপুরের সাংসদ অসিত মাল, জেলা পরিষদের মেন্টর রানা সিংহ, দলের রামপুরহাট ২ নম্বর ব্লক সভাপতি সুকুমার মুখোপাধ্যায়, জেলা সহ সভাপতি সৈয়দ সিরাজ জিম্মি, সাধারণ সম্পাদক ত্রিদিব ভট্টাচার্য, মহিলা সেলের জেলা সহ সভাপতি সাহারা মণ্ডল। সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে বিজেপি নেতা রাহুল সিনহাকে নিশানা করেন তৃণমূলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল।

কী বলেছেন তিনি? অনুব্রত মণ্ডল বলেন,  'রাহুল সিনহা আমাদের দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সম্পর্কে যে নোংরা কথা বলেছে তা ভাষায় প্রকাশ করা যায় না। ওরকম কথা বলতে আমাদের রুচিতে বাধে। ওরা মা বোনেদের সম্মান দেয় না। কারও বাড়িতে মা বোন থাকলে এরকম ভাষায় কথা বলতে পারত না। তবে মানুষ তোমাকে ছাড়বে না। আমরা যদি কোনওদিন তোমাকে পায়, তাহলে রাহুল সিনহা তোমার অর্ধেক চুল কামিয়ে দেব।' বীরভূমের দাপুটে তৃণমূল নেতার হুঁশিয়ারি,  'চোখ রাঙালে ছাড়ব না। বিজেপিকে চাপকে লাল করে দেব।' এদিন বুধিগ্রাম পঞ্চায়েতের বেশ কিছু বিজেপি কর্মী সমর্থক তৃণমূলে যোগদান করেন। তাঁদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন অনুব্রত মণ্ডল।

আরও পড়ুন: করোনা পরীক্ষাই হয়নি,অথচ বর্ধমানের কাটোয়ায় রিপোর্ট এলো পজিটিভ

উল্লেখ্য, এর আগে ২১ জুলাই ভার্চুয়াল সভার বক্তব্যের সমালোচনা করতে গিয়ে রাহুল সিনহা, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্কে আপত্তিকর মন্তব্য করেন বলে অভিযোগ। বিজেপি-র প্রাক্তন রাজ্য সভাপতির বিরুদ্ধে বর্ধমান থানায় অভিযোগও দায়ের করেছে তৃণমূলের মহিলা মোর্চা। তাঁর শাস্তিরও দাবি উঠেছে। এরই মাঝে মুখ খুললেন অনুব্রত মণ্ডল।