এই ভাবে রাজ্যের কর্তাদের ডেকে পাঠানো যায় না। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক এর তলব প্রসঙ্গে এই কথা বললেন তৃণমূল নেতা কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানান, আইন শৃঙ্খলা সম্পূর্ণ রাজ্যের বিষয়, এটা কেন্দ্রের বিষয় নয়। আইন শৃঙ্খলা বিষয়ে রাজ্যকে যদি উত্তর দিতে হয় তাহলে রাজ্য বিধানসভায় দেবে। 

একই সঙ্গে কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতির গাড়িতে জেড কায়াগরির নিরাপত্তা দেওয়া হয়েছিল। অর্থাৎ নিরাপত্তা নেই বলে যে কথা বলা হচ্ছে সেটা সঠিক নয়। সঙ্গে তিনি প্রশ্ন তোলেন, কেউ জেড ক্যাটাগরি নিরাপত্তা পাচ্ছেন এমন ব্যক্তির গাড়ির সামনে কি করে এতো গাড়ির মিছিল তৈরী হলো। একই সঙ্গে তিনি বলেন, সর্ব ভারতীয় বিজেপি সভাপতির গাড়ির আগে ৫০ থেকে ৬০ টি গাড়ির মিছিল ছিল। 

অন্যদিকে বুধবারের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এদিন কল্যাণ  বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপির বিরুদ্ধে প্ররোচনার অভিযোগ তোলেন। তিনি বলেন, রাকেশ সিং নামে এক জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ সে কনভয় থেকে অঙ্গভঙ্গি করছিল। তার বিরুদ্ধে আগেই একাধিক অভিযোগ আছে বলেও জানান কল্যাণ বাবু।

একই সঙ্গে তিনি বলেন, এই ঘটনায় পুলিশ পদক্ষেপ নিয়েছে। বিজেপি সভাপতির গাড়ি ভাঙচুর এর ঘটনায় তিনটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। রাকেশ সিং এর নামে শিরাকোল থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। বিজেপির মিছিলে হামলার ঘটনায়
সাত জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।