'আমার ফিল্মসিটি সেটআপের থেকেও দারুণ। উনি ভাত খেলেন, ডাল, পটলভাজা খেলেন। ইন্টারভিউ দিলেন, আর চলে গেলেন। সব ভাট বকা' অমিত শাহের বাঁকুড়া সফরকে তীব্র কটাক্ষ করলেন সাংসদ নুসরত জাঁহান। 

আরও পড়ুন, সৌরভ না শুভেন্দু , কে হবে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী, মুখ খুললেন অমিত শাহ

 

 

 'তাহলে সেই বাড়ির ১৬ বছরের মেয়েটার ইনসুসিলেনের দায়িত্বই বা নেবে কে'


যোগেশগঞ্জের এক জনসভায় ,অমিত শাহের বাঁকুড়া সফর নিয়ে রীতিমত ব্রহ্মাস্ত্র ছুঁড়লেন অভিনেত্রী সাংসদ নুসরত জাঁহান। সেই  ব্রহ্মাস্ত্রে খানখান হলেন অমিত শাহ নাকি 'কোমল লোচনে' মৃদু হেসে বোঝালেন রাজ্যের ভবিষ্যত তা সময়ই বলবে। তবে বাঁকুড়ার আদিবাসী সম্প্রদায়ের বাড়িতে মধ্যহ্নভোজন নিয়ে যে কথা উঠবে, তা আগেই আঁচ করেছিল রাজনৈতিক মহল। তবে অভিনেত্রী-সাংসাদ নুসরত জাঁহান আরও একধাপ এগিয়ে আলট্রা মর্ডান করে বললেন, 'আমার ফিল্মসিটি সেটআপের থেকেও দারুণ। উনি ভাত খেলেন, ডাল, পটলভাজা খেলেন। ইন্টারভিউ দিলেন, আর চলে গেলেন। সবই ভাট বকা।' আর একবার পর্যবেক্ষকের দৃষ্টিভঙ্গিতে বললেন, 'তাহলে সেই বাড়ির ১৬ বছরের মেয়েটার ইনসুসিলেনের দায়িত্বই বা নেবে কে'।

আরও পড়ুন, হুহু করে নামছে পারদ কলকাতায়, ওদিকে অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস তামিলনাড়ুতে

 

 

চেটে পুছে খাওয়ার পর এমন প্রশংসা

প্রসঙ্গত, আগে থেকেই ঠিক ছিল, বাঁকুড়া সফরে বিরশা মুন্ডার প্রতিকৃতিকে মালা পরিয়ে আদিবাসী সম্প্রদায়ের বাড়িতে মধ্যাহ্নভোজ সারবেন অমিত শাহ। সেই কথা মতোই তাঁর সঙ্গে সেদিন ছিলেন বিজেপি শীর্ষ স্থানীয় নেতারাও। চেটে পুছে খাওয়ার পর এমন প্রশংসা মিলবে তার আভাষ আগেই মিলেছিল কি গেরুয়া শিবিরে। এদিকে শব্দবাণ ছুড়েছেন রাজ্যের অন্যান্য বিজেপি বিরোধি দলও।