উত্তরপ্রদেশের সোনভদ্রে প্রতিনিধি দল পাঠাচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়েনের নেতৃত্বে চারজন সংসদের একটি দল শনিবারই সোনভদ্রে যাবেন। 

গত বুধবার উত্তরপ্রদেশের সোনভদ্রে জমি বিবাদকে কেন্দ্র করে তৈরি হওয়া সংঘর্ষে দশজনের মৃত্যু হয়। আহত হন বেশ কয়েকজন। নিহতদের মধ্যে স্থানীয় বাসিন্দারা ছাড়াও পুলিশ কর্মীরাও রয়েছেন। এ দিন সোনভদ্রে যাওয়ার পথে আটকানো হয় প্রিয়ঙ্কা গান্ধীকেও। সোনভদ্রের ঘটনার জন্য কংগ্রেস আমলের শাসনকেই দায়ী করেছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ।

আরও পড়ুন- উত্তরপ্রদেশে প্রিয়ঙ্কাকে আটকের ঘটনায় যোগী সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন রাহুল গান্ধী 

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তরপ্রদেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি যথেষ্ট সরগরম। এই অবস্থায় বিজেপি-র উপরে চাপ বাড়াতেই সোনভদ্রে প্রতিনিধি দল পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিল তৃণমূল। সাম্প্রতিক কালে পশ্চিমবঙ্গে ভাটপাড়া, সন্দেশখালির মতো বিভিন্ন ঘটনায় সংসদীয় দল পাঠিয়েছে বিজেপি। এবার তারই পাল্টা সোনভদ্রে নিজেদের চার সংসদকে পাঠাচ্ছে পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল। প্রিয়ঙ্কা গান্ধীর মতো তৃণমূল সাংসদদেরও যদি যোগী সরকার আটকানোর চেষ্টা করে, তাহলে তা গোটা দেশের নজরেও আনা যাবে। একুশে জুলাইয়ের ঠিক আগে সেই ইস্যুকে হাতিয়ারও করতে পারবে তৃণমূল কংগ্রেস। একই সঙ্গে কংগ্রেসের পাশে দাঁড়িয়ে বিরোধী ঐক্যেরও বার্তা দেওয়া যাবে। 

সোনভদ্রের ঘটনায় আহত অবস্থায় প্রায় পঁচিশজন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের অবশ্য দাবি, এই ঘটনায় কাউকেই রেয়াত করা হবে না।