তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে ফের উত্তপ্ত দক্ষিণ ২৪ পরগণার বাসন্তী। গুলিবিদ্ধ হয়ে প্রাণ গেল এক তৃণমূল কর্মীর।  আহত আরও বেশ কয়েকজন। উত্তেজনা ছড়িয়েছে বাসন্তীর আট নম্বর খড়িমাচানা এলাকায়। এখনও পর্যন্ত ৫ জনকে পুলিশ আটক করেছে বলে জানা গিয়েছে। 

মৃতের নাম রহিম শেখ।  এলাকায় তৃণমূলকর্মী হিসেবেই পরিচিতি তিনি।  শুক্রবার সন্ধ্যায় যখন কয়েকজন যুবকের সঙ্গে দোকান থেকে বাড়ি ফিরছিলেন রহিম, তখন তাঁকে লক্ষ্য করে দুষ্কৃতীরা গুলি চালায় বলে জানা গিয়েছে।  চলে বোমাবাজিও।  পুলিশ জানিয়েছে, সাত থেকে আট রাউন্ড গুলি চলেছে। সাতটি গুলি লাগে আক্রান্ত যুবকের বুকে ও পেটে। গুরুতর আহত হন তাঁর সঙ্গীরাও। ঘটনার পর রক্তাক্ত অবস্থায় শেখ রহিম-সহ আহতদের  ক্যানিং হাসপাতালে নিয়ে যান স্থানীয় বাসিন্দারা। হাসপাতালে গুলিবিদ্ধ যুবককে মৃত  বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। বাকিরা ভর্তি হাসপাতালে। 

আরও পড়ুন: শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন, মুসলিম যুবককে বাংলাদেশে পাঠানোর হুমকি বাবুলের

আরও পড়ুন: "পাগল মুখ্যমন্ত্রীকে সঙ্গ দিচ্ছেন না দলের নেতারাই", ফের মমতাকে কটাক্ষ দিলীপের

দলেরই অন্য় গোষ্ঠীর লোকেরাই যে শেখ রহিম ও তাঁর সঙ্গীদের লক্ষ্য করে গুলি চালিয়েছে, তা স্বীকার করে নিয়েছেন তৃণমূল কর্মীদেরই একাংশ।  তবে নিহতের সঙ্গে কারও পারিবারিক শক্রতা ছিল কিনা, তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।  দিন কয়েক আগে বাসন্তীর আট নম্বর খড়িমাচানা এলাকায় দুষ্কৃতীদের গুলিতে নিহত হন এক তৃণমূল কর্মী।  ঘটনায় হস্তক্ষেপ করতে হয় খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই বাসন্তীতে ফের খুন হয়ে গেলেন এক তৃণমূলকর্মী। আতঙ্কে স্থানীয় বাসিন্দারা।