দিন কয়েক আগেই সংবাদমাধ্যমে চোখ রেখে স্তম্ভিকত হয়েছিল মানুষ। রেশনের অভাবে ধুঁকতে ধুঁকতে মারা গিয়েছিলেন ঝাড়খণ্ডের বৃদ্ধ রামচরণ মুন্ডা। ঝাড়খণ্ডে গত দুই বছরে ২১ জন মারা গিয়েছিল খেতে না পেয়ে। এবার সেই তালিকায় নাম লেখাল পুরুলিয়া। বলরামপুরে পাওয়া গেল এক অন্তঃসত্ত্বা মহিলার মৃতদেহ। পুলিশের অনুমান অনাহারেই মারা গিয়েছেন ওই মহিলা।  

বুধবার বলরামপুর থানার দড়দা অঞ্চলের জুরাডি গ্রামের মোড়ে  একটি গর্ভবতী মহিলার মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে পথচলতি মানুষ। পাশে দুটো বাচ্চাকে জীবন্ত অবস্থায় কাঁদতে দেখা যায়। একটি শিশু নাকি মৃত  মায়ের দুধও পান করছিল। দৃশ্যের বর্ণনা শুনে স্তম্ভিত নাগরিক সমাজ। 

মহিলার পরিচয় জানা যায়নি।  বলরামপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃত দেহটি উদ্ধার করে। পুলিশের সন্দেহ অনাহারেই মৃত্যু হয়েছে ওই মহিলার। আত্মহত্যা বা খুনের আশঙ্কাও উড়িয়ে দিচ্ছে না পুলিশ। তদন্ত শুরু হয়েছে বলরামরপুর থানায়। মৃত মহিলার মাথায় আঘাতের চিহ্ণ রয়েছে। 

প্রসঙ্গত গত বছর ২৪ মার্চ পশ্চিমবঙ্গে একজনের অনাহারে মৃত্য়ু হয়।  মৃতের নাম ছিল সুরথ কুমার। ভাটপাড়া অঞ্চলের বাসিন্দা রেশন কার্ড ডিজিটাইজেশান না হওয়ায় রেশন পাননি। এই নিয়ে রাজ্যকে চিঠিও দেয় কেন্দ্র। ৮ আগস্ট মারা যান বিমলা পাণ্ডে নামে আরেকজন। এক্ষেত্রেও অভিযোগ ছিল প্রশাসনের তরফে গাফিলতির।