"আমরা মুর্তি  ভাঙি না। মূর্তি পুজো করি। যারা মুর্তি পুজোয় বিশ্বাস করে না, তারাই কলকাতায় বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙ্গেছে। তৃণমুল আশ্রিত দুস্কৃতিরাই মূর্তি ভেঙেছে।" মঙ্গলবার হাবড়ায় দলীয় প্রার্থীর হয়ে প্রচারে এসে এভাবেই বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙা কাণ্ডে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করলেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। 

তৃণমূলকে আক্রমণ করে যোগী আদিত্যনাথের অভিযোগ, অমিত শাহের শান্তিপূর্ণ রোড শো-র উপরে যেভাবে হামলা চালানো হয়েছে, তাতে গণতন্ত্রের একটি কালো অধ্যায়ের সূচনা হল। প্রচারে বেরিয়ে মমতা বার বারই নরেন্দ্র মোদীর এক্সাপায়েরি ডেট ফুরিয়েছে বলে প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ করেছেন। এ দিন তাঁর ভাষাতেই বাংলার মখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণ করে যোগী বলেন, মমতারই এক্সপায়েরি ডেট ফুরিয়ে গিয়েছে।

 

বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙচুরের ঘটনা নিয়ে অমিত শাহ এবং বিজেপি-র উপরেই দায় চাপিয়েছেন মমতা। যোগী বলেন, "একটা মিথ্য লুকোতে গিয়ে মমতাদিদি একের পর এক মিথ্যে বলছেন। তাতে মিথ্যেটা সত্যি হয় না। যে হামলা কাল তৃণমূল চালিয়েছে, সেটাই তৃণমূল সরকারের শেষ কুকীর্তি হয়ে থাকবে। মমতার সরকার যাদের প্রশয় দেয়, সেই দুষ্কৃতীরাই মূর্তি পুজোয় বিশ্বাসী নয়।" 

 

যোগী বলেন, "ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরকে গোটা দেশের মানুষ সম্মান করে। কিন্তু আপনি যে গুন্ডাদের প্রশয় দেন, তাঁরাই বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে মূর্তি ভাঙে। আর নিজের এই অপকর্ম ঢাকা দেওয়ার জন্য আপনি বিদ্যাসাগরকে ভোটের টোপ বানালেন. কিন্তু আপনার এই ঘৃণ্য চক্রান্তের ফাঁদে পা দেবে না বাংলার মানুষ।"

বিজেপি-র হিন্দুত্বের পোস্টার বয় বলে পরিচিত আদিত্যনাথ এ দিন আরও দাবি করেন, উত্তর প্রদেশে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর থেকে একটিও দাঙ্গার ঘটনা ঘটেনি। কিন্তু বাংলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার দাঙ্গায় প্রশ্রয় দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেন যোগী আদিত্যনাথ।