ফের লজ্জায় মুখ ঢাকল কংগ্রেসের। ধরা পড়ে গেল, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং বিজেপির বিরুদ্ধে তাদের ভুয়ো খবর ছড়ানোর প্রচেষ্টা। আর ধরা পড়তেই বাধ্য হয়ে সেই ভিডিও সরিয়ে দিতে বাধ্য হল কংগ্রেস এবং তাদের বিভিন্ন নেতা-নেত্রী। যা নিয়ে ভুয়ো খবর বা  ফেক নিউজ ছড়ানোর অভিযোগে অভিযুক্ত হয়েছে কংগ্রেস।

শুক্রবার, নির্বাচনের প্রচারের জন্য তামিলনাড়ুর মাদুরাই শহরে এসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বিশেষ হেলিকপ্টারে তিনি মাদুরাইয়ে পৌঁছান। পৌঁছেই স্বাভাবিকভাবে তিনি জনগণের দিকে হাত নাড়েন। কিন্তু, কংগ্রেসের দাবি মাদুরাইয়ে মোদীর সভায় লোকই হয়নি। ফাঁকা মাঠকে উদ্দেশ্য করেই হাত নাড়েন তিনি। ওই ঘটনার একটি ভিডিও ক্লিপও তারা প্রকাশ করে।   

কংগ্রেসের পোস্ট করা সম্পাদিত ভিডিও, যা সত্য প্রকাশের পর মুছে দেওয়া হয়েছে

যুব কংগ্রেসের জাতীয় সভাপতি তথা কর্নাটকের কংগ্রেস নেতা শ্রীনিবাস বিভি আরও একধাপ এগিয়ে আরও নরেন্দ্র মোদীর আরও কয়েকটি হাত নাড়ার ভিডিও ক্লিপ প্রকাশ করে দাবি করেছিলেন, মোদী বরাবরই মানুষকে ধোঁকা দিতে এইভাবে ফাঁকা জায়গার উদ্দেশ্যে হাত নাড়েন।

তবে, এর কিছু পরই ওই ঘটনার আসল ভিডিওটিও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশিত হয়। সেখানে দেখা যায়, প্রচুর মানুষ প্রধানমন্ত্রীকে দেখার জন্য জড়ো হয়েছেন। আর তাঁদের উদ্দেশ্যে হাত নাড়ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার জন্য, জনগণ হেলিপ্যাড থেকে অনেক দূরে দাঁড়িয়ে থাকলেও, শোনা গিয়েছে তাঁদের 'মোদী, মোদী' স্লোগান।

অর্থাৎ, ভিডিওটিকেই এডিট করেছিল কংগ্রেস। দুটি ভিডিও তুলনা করে দেখা গিয়েছে, সম্পাদিত ভিডিওটিতে, দূরে থাকা জনগণকে ঝাপসা করে দেওয়া হয়েছে। সেইসঙ্গে 'মোদী মোদী' স্লোগানের শব্দও সরিয়ে নেওয়া হয়েছে ভিডিওটি থেকে। ভিডিওটি শুধু কংগ্রেস দলের সরকারি টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকেই নয়, শ্রীনিবাস বিভি, পবন খেড়া-সহ অনেক বিশিষ্ট কংগ্রেস নেতাও পোস্ট করে হাসাহাসি করেছিলেন। কিন্তু, এই জালিয়াতি  ধরা পড়ে যাওয়ার পর এখন সকলেই ভিডিওটি টুইটার থেকে মুছে ফেলেছেন। দলের সরকারি অ্যাকাউন্ট থেকেও সরিয়ে নেওয়া হয়েছে ভিডিওটি।

আরও পড়ুন - নিশানায় কমিশন থেকে অমিত শাহ - মুক্তি পেয়েই হুঙ্কার ছাড়লেন মমতা, অট্টহাসি শুভেন্দুর

আরও পড়ুন - নন্দীগ্রামে মমতা কি হারের ভয় পাচ্ছেন - ভরসার তালিকায় কেন এখন রাজ্যপাল, আদালত আর সুদীপ জৈন

আরও পড়ুন - বয়াল গ্রামে বোতল-বন্দি মমতা, ফুটবলের স্ট্র্যাটেজিতেই কি মাত করলেন শুভেন্দু

এই নিয়ে নেটিজেনদের তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছে কংগ্রেস। অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন, শতাব্দীপ্রাচীন দলটির কি এখন এতই দেউলিয়া অবস্থা, যে ফেক ভিডিও প্রকাশ করতে হচ্ছে? আসল ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। তবে, কংগ্রেস দলের পক্ষে নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ করতে গিয়ে ফেক ভিডিও প্রকাশ করা এই প্রথম নয়। এর আগে এমনকী প্রিয়াঙ্কা গান্ধীও একই কাজ করেছেন। শশী থারুরের মতো বেশ কয়েকজন নেতাকে প্রকাশ্যে ক্ষমাও চাইতে হয়েছে। তারপরও এই প্রবণতা যায়নি।