লক্ষ্মীদেবীর কৃপা দৃষ্টি সংসারে বজায় রাখার জন্য বাংলার ঘরে ঘরে আগে বৃহস্পতিবার লক্ষ্মীর পাঁচালি পড়ে দেবীর আরাধনার কথা প্রচলিত রয়েছে। কথিত আছে, দেবী লক্ষ্মীর কৃপাদৃষ্টিতে সংসারের আর্থিক অনটন-সহ যাবতীয় সঙ্কট দূর হয়ে যায়। এমনই কিছু নিয়ম পালনের মাধ্যমে আপনি সমস্ত আর্থিক সমস্যা কাটিয়ে উঠতে পারবেন সহজেই। তিনি বিষ্ণুর শক্তিরও উৎস। বিষ্ণু রাম ও কৃষ্ণ রূপে অবতার গ্রহণ করলে, লক্ষ্মী সীতা ও রাধা রূপে তাদের সঙ্গিনী হন। কৃষ্ণের দুই স্ত্রী রুক্মিণী ও সত্যভামাও লক্ষ্মীর অবতার রূপে কল্পিত হন।

আরও পড়ুন- এই মাসে অর্থপ্রাপ্তির যোগ রয়েছে এই রাশিগুলির, জেনে নিন সেই তালিকা

লক্ষ্মী হলেন হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম এক দেবী। তিনি ধনসম্পদ, আধ্যাত্মিক সম্পদ, সৌভাগ্য ও সৌন্দর্যের দেবী। তিনি বিষ্ণুর পত্নী। তার অপর নাম মহালক্ষ্মী।জৈন স্মারকগুলিতেও লক্ষ্মীর ছবি দেখা যায়। লক্ষ্মীর বাহন পেঁচা। লক্ষ্মী ছয়টি বিশেষ গুণের দেবী। বাঙালি হিন্দুরা প্রতি বৃহস্পতিবার লক্ষ্মী আরাধনা করে থাকেন। তবে জানলে অবাক হবেন ফাল্গুন মাসে প্রতি সন্ধ্যেবেলা দেবী লক্ষ্মীর আরাধনা করলে সকল সমস্যা কাটিয়ে উঠতে পারবেন। তাই ফাল্গুন মাসে সংসারের আর্থিক সমস্যা কাটিয়ে উঠতে পালন করুন কিছু নিয়ম। শুধু দেবীলক্ষ্মীর আরাধনাও তারসঙ্গে মেনে চলতে হবে আরও কিছু নিয়ম। জেনে কোন উপায়ে আপনি মুক্তি পেতে পারেন এই আর্থিক সমস্যা থেকে-

আরও পড়ুন- ফাল্গুন মাস কেমন প্রভাব ফেলবে বৃষ রাশির উপর, দেখে নিন

এই মাসে প্রতি সন্ধ্যেবেলায় ধনদেবতা কুবেরের উদ্দেশ্যে উত্তর দিকে মুখ রেখে প্রদীপ জ্বালান। উত্তর দিক হল ধনদেবতা কুবেরের দিক। তাই আর্থিক উন্নতির জন্য অবশ্যই মেনে চলুন এই পদ্ধতি।  
প্রতিদিন সন্ধ্যেবেলায় বজরংবলীর সামনে এক টুকরো ফিটকিরি রেখে দিন। মনের সকল ইচ্ছে জানিয়ে বজরংবলীর আরাধনা করুন। হনুমান চল্লিশা পাঠ করুন। বজরংবলীর উদ্দেশ্যে মিষ্টি বা সাধ্য মত ভোগ দিন। এতেও সংসারের সমস্ত নেগেটিভ শক্তি দূর হয় বাধা বিঘ্ন কেটে যায়। আপনার সমস্ত মনের ইচ্ছে পূরণ হবে।

আরও পড়ুন- বৃহস্পতিবারের সারাদিন কেমন কাটবে আপনার, দেখে নিন আজকের রাশিফল


প্রতিদিন সন্ধ্য়েবেলায় ঘরে এবং বাড়ির আশে-পাশে ধূপ ধুনো দেখিয়ে, প্রদীপ জ্বেলে লক্ষ্মীর ঘট স্থাপন করে, দেবী লক্ষ্মীর পুজো করুন। বৃহস্পতিবার করে পুজো শেষে পাঁচালি পড়বেন। এতে দেবীর কৃপা দৃষ্টি সংসারে বজায় থাকবে আর্থিক সমস্যাও কেটে যাবে।