গ্লোবাল লাইভিবিলিটি ইনডেক্স অর্থাৎ আন্তর্জাতিক বসবাসযোগ্য সূচক ২০১৯-এর তালিকার ভিত্তিতে বিশ্বের সবচেয়ে বসবাসের অযোগ্য স্থানগুলির মধ্যে তৃতীয় স্থানে অবস্থান করছে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা। প্রথম দুটি স্থান অধিকার করে রয়েছে যুদ্ধ-বিধ্বস্ত সিরিয়ার রাজধানী দামাসকাস এবং লাগোস। 

যদিও গত বছর এই সূচকের রিপোর্টের ভিত্তিতে ঢাকা ছিল পৃথিবীর দ্বিতীয় বসবাসের অযোগ্য শহর। লন্ডন ভিত্তিক একটি সংস্থা দ্য ইকনমিক ইনটেলিজেন্স ইউনিট-এর তরফে একটি তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে ১৪০টি দেশ নিয়ে। তৈরি হওয়া তালিকার নিরিখে এবছরের তবে বিশ্বের সবচেয়ে বসবাসযোগ্য শহরের তালিকায় শীর্ষস্থানে উঠে এসেছে ভিয়েনা। আর তারপরেই রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার বৃহত্তম দুটি শহর মেলবোর্ন এবং সিডনি। এই তালিকায় ১১৮ এবং ১১৯ নম্বর স্থানে যথাক্রমে নাম রয়েছে নয়া দিল্লি এবং মুম্বই-এর। 

রেলযাত্রীদের জন্য সুখবর, ২০২২ সালের মধ্যে আসতে চলেছে ৪০টি নতুন বন্দে ভারত এক্সপ্রেস

আরও অস্বস্তিতে চিদম্বরম, আগাম জামিন খারিজ সুপ্রিম কোর্টের, বাড়ল ইডির গ্রেফতারির আশঙ্কা

লিভ ইন সম্পর্কে জড়িত মহিলারা 'উপস্ত্রী'র সমান, দাবি রাজস্থান মানবাধিকার কমিশনের

এবছরের সূচকে বিশ্বের তৃতীয় বসবাসের অযোগ্য স্থান হিসাবে জায়গা করে নেওয়া ঢাকা সর্বমোট ৩৯.২ রেটিং (আদর্শ রেটিং- ১০০) পেয়েছে, যার মধ্যে স্থিতিশীলতার জন্য ৫৫, স্বাস্থ্যসেবার ক্ষেত্রে ২৯.২, সংস্কৃতি আর পরিবেশে ৪০.৫, শিক্ষাক্ষেত্রে ৪১.৭ এবং পরিকাঠামোগত দিক থেকে ২৬.৮ রেটিং পেয়েছে ঢাকা। তালিকায় উন্নতির পথে এগিয়েছে মস্কো, বেলগ্রেড, হানোই-এর মতো শহর, এবং ক্রমশ অবণতির দিকে এগিয়েছে ডেট্রয়েট, টুনিশ, ত্রিপোলি-র মতো শহর।