ছবির বিষয় নিয়ে অনেক সমালোচনার চৌকাঠ পেরিয়ে বিভিন্ন জটিলতা কাটিয়ে অবশেষে মুক্তি পাচ্ছে  অভিমন্যু মুখোপাধ্যায়ের  পরিচালিত ছবি 'টেকো'। আদালতের স্থগিতাদেশের কারণে ২২ নভেম্বর ছবিটি যে প্রেক্ষাগৃহে আসবে না সে আশা ছেড়েই দিয়েছিলেন সিনেমাপ্রমীরা। অবশেষে সব জল্পনার অবসান হল।  আগেও এই ছবি নিয়ে অনেক তর্ক-বির্তক হয়ে গেছে।  ছবি তো অনেক দূর, ছবির ট্রেলরও নাকি দেখানো যাবে না এমনই নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। আপাতত সেই সব কিছুকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে নির্ধারিত দিনেই অর্থাৎ ২২ নভেম্বর প্রেক্ষাগৃহে আসতে চলেছে 'টেকো'।

আরও পড়ুন-মেটালিক পোশাকে রেড কার্পেট মাতালেন নুসরত, দেখুন ভিডিও...

হিন্দি ছবি 'উজড়া চমন' এবং 'বালা' এই ছবি দুটির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখেই বাংলা ছবি'টেকো' বানানো হয়েছে। আর ছবির বিষয়বস্তুও নাকি এক। এই নিয়ে তরজা চলছিল প্রযোজক-পরিচালকদের মধ্যে। তবে উল্লেখ্য,'টেকো' ছবির গল্প সম্পূর্ণ আলাদা এই দুই ছবির থেকে। প্রতিযোগিতার বাজারে ক্রেতা ধরে রাখতে বিভিন্ন আকর্ষণীয় বিজ্ঞাপণ দিয়ে প্রলোভন দেখিয়ে যেভাবে হাজার হাজার মানুষকে বোকা বানানো হচ্ছে, তার থেকে মানুষকে সাবধান হওয়ার বাণীই দিয়েছেন পরিচালক 'টেকো' ছবিতে। 

আরও পড়ুন-সুর সম্রাজ্ঞির ভুয়ো মৃত্যুর খবরে তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়া, ক্ষুব্ধ দেশ...

ছবির ট্রেলর ঘিরেই হয়েছিল  মূল সমস্যার সূত্রপাত। ট্রেলরে ছবির অভিনেতা ঋত্বিক চক্রবর্তীর মাথায় যে তেল মেখে  চুল গজানোর দৃশ্য দেখানো হয়েছে সেই তেলের বোতলটির সঙ্গে নামী এক প্রস্তুতকারক সংস্থার  হুবহু মিল রয়েছে।  যদিও সেই বোতলের গায়ে কোনও সংস্থার নাম দেখানো হয়নি। এমনই দাবি করেছে সংস্থার পক্ষ থেকে। আর সেই জন্যই ছবি মুক্তিতে স্থগিতাদেশ চেয়ে ছবি মুক্তি বন্ধ রাখার আর্জি জানিয়েছিল ওই সংস্থা। সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে ,এতে ক্রেতারা ভুল বুঝবেন এবং তাদের ৬০০ কোাটি টাকার ব্যবসায় লোকসান হতে পারে।

 ইউটিউব বা অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া থেকে 'টেকো'-র ট্রেলার তুলে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। কিন্তু এখন যাবতীয় মেঘ কেটে গিয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় আবারও দেখতে পাবেন 'টেকো'-র ট্রেলার। তবে'উজড়া চমন' বক্স অফিসে হিট না করলেও  'বালা' ইতিমধ্যেই ১০০ কোটির ক্লাবের দৌড়ে রয়েছে। এবার 'টেকো'-র পালা।