জীবনে ব্যর্থতার পর আবার ব্যর্থতা আসতেই পারে। কখনও সেটা একমুখী । কখনওবা বহুমুখী। আর ঠিক তেমনটাই ঘটেছে আবিরের জীবনেও। যে ছাত্র জীবনেও সেভাবে সফল হতে পারেননি।  চাকরি জীবনেও পেয়েছেন  ব্যর্থতা। ভাল ছাত্র কিংবা ছবির পরিচালক কোনওটাই তার সেভাবে হওয়া হয়ে ওঠেনি।ব্যর্থতা যখন সবদিক থেকেই ঘিরে ধরে তখন  প্রেম তো আরও দুরূহ।সব মিলিয়ে ভরা-ডুবি। সত্যিই যে জীবন আর চলছেনা সোজা পথে। এমন একটা সময় ,খারাপ ছেলে ছাড়া কিইবা তকমা জুটতে পারে আর আবিরের ভাগ্যে। যাইহোক ভিক পরিচালিত 'বুড়ো সাধু' বাংলা ছবিতে আবিরের চরিত্রেই অভিনয় করেছেন ঋত্বিক চক্রবর্তী।
   
সম্প্রতি কলকাতায় হয়ে গেল এই  ছবির ট্রেলার ও মিউজিক লঞ্চ। উপস্থিত ছিলেন  'বুড়ো সাধু' ছবির প্রায় সব কুশীলবরাই।  ঋত্বিক চক্রবর্তী, চিরঞ্জিত চক্রবর্তী, ঈশা সাহা ও  ছাড়াও আরও অনেকে। বুড়ো সাধু-র সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন  প্রাঞ্জল দাস।ছবিতে গান গেয়েছেন লগ্নজিতা চক্রবর্তী এবং তিমির বিশ্বাস। 'বুড়ো সাধু' ছবিতে শ্বেতার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন ঈশা।ঋত্বিকের প্রথম প্রেমিকার চরিত্রে অভিনয় করেছেন  টেলি তারকা মিশমি দাস।এছাড়াও রয়েছেন দোলন রায়, দেবেশ চট্টোপাধ্যায়, বরুণ চক্রবর্তীর মতো শিল্পীরা। তবেছবিতে একেবারে অন্য অনুভূতির চরিত্রে অভিনয় করেছেন চিরঞ্জীত। 

জীবনে বারংবার ব্যর্থতায় মদকাসক্ত হয়ে পড়ে আবির।কোন পথে সে যাবে, যদি সেই পথেও আবার সে অসফল হয়। আসলে অনিশ্চয়তা যেনও আবিরের পিছু ছাড়ে না। কিন্তু অন্ধকারের মধ্যেই যে আলোর উৎস লুকিয়ে থাকে। এই ছবিও তার ব্যাতিক্রম নয়। ধীরেধীরে  নতুন মোড় আসতে থাকে আবিরের জীবনে। কিভাবে জানতে হলে অপেক্ষা করতে হবে দীপাবলি অবধি। কারণ দীপাবলিতেই 'বুড়ো সাধু'র শুভমুক্তি।