মিষ্টি দাস। এই মুহূর্তে বাংলা বিনোদন জগতে এক পরিচিত মুখ শুধু নন যথেষ্টই জনপ্রিয় তিনি। তারপরে যেভাবে ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে প্রতিদিন তাঁর ফলোয়ারের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে তাঁকে অনায়সেই বলা যায় হট-হট সেলিব্রিটি। অল্পবয়স- প্রাণোচ্ছ্বল যৌবন এবং অবশ্যই তাঁর সাহসিকতা, গ্ল্যামারওয়ার্ল্ডে টিকে থাকতে গেলে যে বিষয়গুলি দরকার- তার সবটাই রয়েছে তাঁর মধ্যে। এহেন মিষ্টি দাসের একটি ভিডিও ঘিরে হইচই। আর সেই ভিডিওটি হচ্ছে তাঁর প্রিয় পৌষ্য-কে কোলে বসিয়ে দুগ্ধপান করানোর। 

এই ভিডিওটি সপ্তাহৎখানেক আগে ইনস্টাগ্রামে আপলোড করেছিলেন মিষ্টি। ভিডিও-টিতে তাঁকে দেখা গিয়েছে একটি হলুদ রঙের বেসে জোবরা-কাটা স্প্যাগেটি পরে তিনি তাঁর পৌষ্যকে দুধ পান করাচ্ছেন। মিষ্টি-র হাতে রয়েছে একটি ছোট্ট ফিডিং বোতল, আর তা থেকে তিনি ছোট্ট পোষ্যটিকে দুধ পান করাতে ব্যস্ত। পোষ্যটি যে একটি ল্যাবরাডর প্রজাতির সারমেয় তা ভিডিও-তেই স্পষ্ট হয়ে ধরা পড়েছে। এই ভিডিও-তে মিষ্টিকে বেশ উচ্ছ্বল এবং হাসিখুশিভাবেই দেখা গিয়েছে। মিষ্টি তাঁর সৌন্দর্য এবং প্রাণোচ্ছ্বলতার জন্য বেশ জনপ্রিয়। তার পুরোটাই ধরা পড়েছে এখানে। এমন দুটি ভিডিও ইনস্টাগ্রামের একই থ্রেডে আপলোড করেছেন মিষ্টি। যা যে কোনও সারমেয় প্রিয় মানুষের মন ভরিয়ে দেবে। 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

Then #pogo 🐶

A post shared by Misty Das (@das.misty) on Feb 7, 2020 at 11:12am PST

 

এই ভিডিও-টি বহু দিন আগে তোলা বোধহয় বলেই মনে করা হচ্ছে। কারণ, শুক্রবার মিষ্টি এমন একটি ছবি ইনস্টাগ্রামে পোষ্ট করেছেন যেখানে একটি বেশ বড় ল্যাবরাডরকে কোলে নিয়ে তাঁকে পোজ দিতে দেখা গিয়েছে। মনে করা হচ্ছে এই ল্যাবরোডরেরই ছোটবেলার দুধ খাওয়ার ছবি ইনস্টাগ্রামে দিন সাতেক আগে পোস্ট করেছিলেন মিষ্টি। 

 

শুক্রবারের এই পোস্টে মিষ্টি আরও লিখেছেন যে দিনটি যেহেতু প্রেমদিবস, মানে ভ্যালেন্টাইন্স ডে , তাই তিনি এই মুহূর্তটা তিনি এভাবেই পালন করছেন। মিষ্টি যে একজন মানুষ হিসাবে খুবই স্পর্শকাতর ও সচেতন মনের তা তার আরও একটি পোস্ট প্রমাণ করে দিয়েছে। সাধারণত যারা পশু-পাখি ভালবাসেন তাঁরা একটু স্পর্শকাতর হন বলেই মনোবিদরা ব্যাখ্যা করে থাকেন। 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

A post shared by Misty Das (@das.misty) on Jan 18, 2020 at 8:26am PST

মিষ্টি-র বয়স অনেকটাই কম এবং তাঁকে দেখে বোঝাই যায় যে তিনি বর্তমান জেনারেশনের প্রতিনিধি। তাই তাঁর মধ্যে উচ্ছ্বাস, আবেগ, ডিজিটাল দুনিয়ার প্রতি আসক্তি- এণন গুণগুলোই থাকা স্বাভাবিক। যেহেতু গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ডের সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছেন মিষ্টি সেহেতু তাঁকে সর্বক্ষণই কিছু না কিছু নতুন কাজকর্মে সকলের সামনে মেলে ধরতে হয়। এখনকার দিনে শুধু অভিনয় বা শ্যুটিং ফ্লোরেই অভিনেতা-অভিনেত্রীর জীবন আবদ্ধ নয়। ডিজিটাল মাধ্যমে অভিনেচা-অভিনেত্রীরা সাধারণ মানুষের আরও কাছে চলে এসেছেন। সেই দিক দিয়ে দেখলে মিষ্টি এই মুহূর্তে এমনভাবে তাঁর সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে নিজেকে তুলে ধরছেন তাতে ভবিষ্যতের তারকা বলে তাঁর উপরে বাজি ধরা যেতেই পারে।