কে যাবে তৃণমূলে আর কে যাবে বিজেপিতে। এই নিয়ে চলছে জল্পনা। টলিউডে অদলবদল। নির্বাচনের সময় যত এগিয়ে আসছে ততই যেন  দলবদলের হিড়িক বেড়ে চলেছে।  রাজনৈতিক টালবাহানার মধ্যে টলিপাড়ার একাংশ তারকারাই যোগ দিচ্ছেন বিজেপি-তে। এবার বিজেপিতে যোগ দিলেন টলিপাড়ার অভিনেত্রী পায়েল সরকার।জে পি নাড্ডার উপস্থিতিতেই বিজেপির পতাকা তুলে দেন দিলীপ ঘোষ।

আরও পড়ুন-কাজলের 'Sir' কবে থেকে হলেন অজয়, সুখী দাম্পত্যে কি সত্যিই চিড় ধরল, বিবাহবার্ষিকীতে জল্পনা তুঙ্গে...


২১-শের বঙ্গ ভোটকে লক্ষ করেই পালাবদলের হিড়িক চলছে। টলিপাড়াতেই যেন বিভেদ চলছে। কেউ শাসকদল তো কেউ গেরুয়া শিবির, একের পর এক রাজনৈতিক পালাবদলে সরগরম বঙ্গ রাজনীতি। বাংলা দখল করতে যেন ঝাঁপিয়ে পড়ছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী থেকে বিজেপি নেতারা। প্রধানমন্ত্রী থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ বারংবার আসছে বঙ্গ সফর। আজই জে পি নাড্ডার সফরে বিজেপির দলীয় পতাকা হাতে তুলে নিলেন টলিপাড়ার প্রথমসারির অভিনেত্রী পায়েল সরকার। বিজেপি-তে যোগ দিয়েই 'নতুন শুরু' বলে  ছবি শেয়ার করেছেন অভিনেত্রী।

 

২০২১ সালে বিধানসভা নির্বাচনের আগে দল বদলের হিড়িক পড়েছে। টলিপাড়ার মধ্যেই যে তৃণমূল-বিজেপি নিয়ে দুই দল তৈরি হয়ে গেছে। সূত্রের খবর, মুকুল রায় এবং দিলীপ ঘোষের নেতৃত্বেই নাকি পদ্ম শিবিরে যোগ দিতে চলেছেন টলিপাড়ার একঝাঁক অভিনেতারা। কিছুদিন আগে  খড়কুটো অভিনেতা কৌশিক রায়ও বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। এবার কৌশিকের পর টলি অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত শেষমেষ যোগ দিয়েছেন বিজেপিতে। 


মুকুল রায়  এবং কৈলাস বিজয়বর্গীয়র নেতৃত্বেই পদ্ম শিবিরে যোগ দিয়েছেন যশ। বিজেপিতে যোগ দিয়েই সুরবদল হয়েছে অভিনেতা যশের। এর মধ্যেই বামপন্থী মনোভাবাপন্ন  অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ যোগ দিয়েছেন তৃণমূলে। তারপর থেকে মিমে ভরে গিয়েছে সামাজিক মাধ্য়ম। সামাজিক মাধ্য়মের ড্রামাডোলে মুখ খুলেছেন শ্রীলেখা মিত্র। যদিও সায়নী এ বিষয়ে মুখ না খুললেও জানিয়েছেন, বাংলা ঘরের মেয়েকেই চাই।  তবে গতকাল সায়নী ঘোষ, কাঞ্চন মল্লিক, মনোজ তিওয়ারি তৃণমূলে যোগ দেওয়ার কয়েক ঘন্টা পেরতে না পেরতে বিজেপি-তে যোগ দিলেন পায়েল সরকার। শাসকদলের নুসরত-দেব-মিমির মতো হেভিওয়েট সাংসদের সঙ্গে টেক্কা দিতে প্রস্তুত হচ্ছেন বঙ্গ বিজেপির পায়েল-যশরা ।