ঠেকানো গেল না করোনাকে। টলিউডেও কড়াল থাবা বসাল এই মারণ ভাইরাস। ইতিমধ্যেই এই মারণ ভাইরাসে ত্রস্ত হয়ে উঠেছে গোটা দেশ। এবার করোনার হানা বাইপাসের অভিজাত আবাসনে। আর সেখানেই রয়েছেন টলিপাড়ার তাবড় তাবড় ব্যক্তিত্বরা। যেমন রাজ চক্রবর্তী, শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়,  পায়েল সরকার, অরিন্দম শীল।  লকডাউনে কড়াকড়ি মেনেও এড়ানো গেল না করোনাকে। সেই আবাসনের এক বাসিন্দাই করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। তার আক্রান্ত হওয়ার খবরেই আতঙ্ক ছড়িয়েছে সকলের মধ্যে। বর্তমানে তিনি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। কিন্তু কীভাবে করোনা হানা দিল সেই আবাসনে তা নিয়েই একাধিক প্রশ্ন উঠছে।

আরও পড়ুন-বিবাহিত হওয়া সত্ত্বেও 'এক রাতের সঙ্গম', কেন এমনটা করেছিলেন নওয়াজ...

এদিকে রাজ-শুভশ্রীর জীবনে নতুন অতিথি আসছে চলত বছরেই। আর তার মধ্যেই করোনার নয়া আতঙ্ক গ্রাস করেছে গোটা পরিবারকে। পরিচালক রাজও আতঙ্কিত। এমনিতেই শুভশ্রীর প্রেগনেন্সি নিয়ে অনেকটাই সচেতন রাজ। কিন্তু সচেতনার মধ্যেও কোভিড-১৯ এর খবরে চিন্তিত হয়ে পড়েছেন পরিচালক। তিনি সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, যিনি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তিনি রাজের কয়েকটি তল নীচেই থাকেন। দুশ্চিন্তা আরও কয়েকশো গুন বেড়ে গেছে। শুভশ্রীর জন্য রাজ নিজেও বাজারে যাচ্ছিলেন না, তার জামাইবাবুই বাজার করে দিতেন। এবার আশঙ্কা সেটাও আর সম্ভব হবে না। এর পর যে কি হবে সেই নিয়ে চিন্তিত রাজ চক্রবর্তী। 

আরও পড়ুন-প্রবীণ মানুষদের প্রতি সাহায্যের হাত, মানবিক উদ্যোগ আয়ুষ্মানের...

অভিনেত্রী পায়েল সরকারও সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, কড়া নিয়মেই তাদের আবাসনকে মুড়ে রাখা হয়েছিল। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে যা হচ্ছে তা নিয়ে সত্যিই ভীষণ চিন্তা বাড়ছে। পরিচালক-অভিনেতা অরিন্দম শীলের গলাতেও বিরক্তির সুর, আক্ষেপের সুর। করোনা আতঙ্ক এখন ছড়িয়ে পড়েছে সর্বত্র। মুহূর্তের মধ্যে একজনের থেকে আরেকজনের শরীরে ছড়িয়ে পড়ছে এই ভাইরাস। ইতিমধ্যেই করোনা আতঙ্কে জেরবার বিশ্ববাসী । মানুষের সংস্পর্শেই সংক্রমিত হচ্ছে এই করোনা ভাইরাস । মানুষের নিঃশ্বাস প্রশ্বাসের সঙ্গেই ছড়িয়ে যাচ্ছে এই রোগের জীবানু। যত দিন যাচ্ছে ততই যেন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে ভাইরাসে আক্রান্ত সংখ্যা।