ক্রমেই চিন্তা বাড়িয়ে চলেছে স্নায়ুর সমস্যা। সঙ্কট এখনও কাটেনি প্রবীণ অভিনেতারয। তাই চতুর্থ সপ্তাহে এবার আন্তর্জাতিক চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়ার সিদ্ধান্ত। ঠিক কী কী ভাবে এতদিন চিকিৎসা চলেছে তা জানানো হবে বিস্তারিতভাবে, নেওয়া হবে তাঁদের মতামত, বয়সের কারণে কোনও রকমের ঝুঁকি নিতে নারাজ ডাক্তারের বিশেষ টিম। কড়া নজরেই রাখা হয়েছে অভিনেতাকে। 

করোনাকে জয় করলেও মেলেনি নিস্তার। একের পর এক শারীরিক জটিলতাকে ঘিরে জেরবার প্রবীণ অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই সামনে এসেছে তাঁর একাধিক ছবি। হাসপাতালের ভেতর থেকে লিক হয়ে যাওয়া ছবি এখন নেট দুনিয়ায় ভাইরাল। যা দেখে ভক্তদের বেড়েছে উদ্বেগ। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত স্বাস্থ্যের অবস্থা ভালো ছিল না তাঁর। কমেছিল শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা। 

বর্তমানে খানিক স্থিতিশীল তিনি। ভালো আছেন। তবে স্নায়ুর সমস্যাই ভাবিয়ে তুলছে ডাক্তারদের। সপ্তাহের শুরুতেই মিলেছিল স্নায়ুর সমস্যার খবর। তড়িঘড়ি শুরু করা হয়েছিল স্টেরয়েড। কিন্তু সেই স্টেরয়েডের মাত্রা কমিয়ে দিলেও আবারও হবেড়ে যাচ্ছে সেই সমস্যা। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শরীরে থাকা নানা রোগের কারণেই অভিনেতার স্থিতিশীল হবে বেশ সময় লাগছে। শরীরে থাকা ক্যান্সার এখন খানিক কাবু। 

 

পাশাপাশি কমেছে হিমোগ্লোবিনের মাত্রাও। বেশ কিছু পরীক্ষা করা এখনও বাকি। মস্তিষ্ক থেকে ফ্লুইড নিয়ে করা হবে পরীক্ষা। তবে বর্তমানে তাঁর অক্সিজেনের মাত্রা স্বাভাবিক। প্রয়া টানা একমাস হতে চলল শারীরের নানা সমস্যায় ভুগছেন অভিনেতা। করোনা পজিটিভ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। বর্তমানে সেই দুর্যোগ কাটালেও, শরীরে থাকা অন্যান্য সমস্যাই থেকে থেকে মাথা চারা দিয়ে উঠছে।