একের পর এক চমক নিয়ে হাজির অভিনেতা জিৎ। নিজের পঞ্চাশতম ছবিকে ঘিরে উত্তেজনা এখন তুঙ্গে। ক্রমেই এক একটি গান মুক্তির সঙ্গে সঙ্গে মোড় বদলাচ্ছে ছবির গল্প। শেষ থেকে শুরু ছবির প্রথম গানেই ধরা পড়েছিল ছবির যে রূপ, তা পরতে পরতে বদলাতে থাকে চেনা সমীকরণ। জিৎ-কোয়েলের পর্দার রসায়ণ ক্রমেই মলিন হতে থাকে। আর চতুর্থ গানে এসে ধরা দেয় গল্পের ভিন্ন এক প্রতিচ্ছবি। মূল স্রোত থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়া এক প্রেমের গল্প।

চতুর্থ গানে এসে শেষ থেকে শুরু ছবির বেশ কয়েকটি মুহুর্ত দর্শকের কাছে স্পষ্ট হয়ে ওঠে। যেমন জিৎ-কোয়েলের প্রেম, জিৎ-এর অনিচ্ছাকৃত ঋতাভরীকে বিয়ে, প্রতিপত্তি ছেড়ে ভালোবাসার প্রতিশ্রুতি, প্রেমের পথের অন্তরায় ধর্ম। ছবিতে কীভাবে ফুঁটে উঠবে বিষয়গুলো তার উত্তর মিলবে কেবলমাত্র ছবি মুক্তির পরই।

শেষ থেকে শুরু ছবির অপর আকর্ষণ হল ঋতাভরী। এর আগের দুটি গানে কোয়েল ও একটি আইটেম ডান্স-এ সায়ন্তিকার লুক প্রকাশ্যে এসেছিল। কিন্তু চতুর্থ গানে নজর কাড়ল ঋতাভরী চক্রবর্তী। তার বিয়ের অনুষ্ঠান দিয়েই শুরু হয় গানের প্রথম দৃশ্য। সে নতুন কনের সাজেই হোক বা বিয়ের সকালের হলুদ শাড়ি, পর্দায় ঋতাভরীর উপস্থিতি এই ছবিকে যে অতিরিক্ত মাইলেজ দিতে চলেছে, এই গান মুক্তির পর সেই বিষয় আর সন্দেহ থাকে না।

ধর্মীয় সংকটের মুখে পরে প্রেমের আহুতি, নাকি অসামাজিক জীবন যাপনের পরিণতি, ছবির প্রেক্ষাপট কোন পথে গল্প বলবে তার উত্তর মিলবে ঈদেই।