কয়েকদিন ধরেই সংবাদ মাধ্যম থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় চর্চার কেন্দ্রে অভিনেত্রী জুন মালিয়া। তবে এর পিছনে কারণ হিসেবে রয়েছে তাঁর বিয়ের খবর। কাকে বিয়ে করছেন দুই সন্তানের মা জুন, সে নিয়ে প্রথম থেকেই জল্পনা যেমন বেড়েছে তেমনই রহস্যও ঘনীভূত হচ্ছে। আর এই খবরের মাঝেই আরো একটি খবর উঠে এল দ্য এশিয়ান এজ এবং প্রিয় বন্ধু বাংলা, এই দুটি সাইটে। সৌরভ চট্টোপাধ্যায় নাকি স্পষ্ট জানিয়েছেন, জুন মালিয়াকে তিনি বিয়ে করছেন না।

কেবিসি বয়কট নিয়ে তোলপাড় নেটদুনিয়া, সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষমা চাইলেন অমিতাভ

একদিকে জুনের বিয়ে নিয়ে আলাপ-আলোচনা যখন তুঙ্গে, তখন এই ধরণের একটি খবর যে তাল-ছন্দ কেটে সব এলোমেলো করে দিতে পারে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। আর হলও তেমনটাই। কেন এমন বললেন সৌরভ চট্টোপাধ্যায়, তা জানতে গিয়েই অনেকের কাছেই বিষয়টি দুধ কা দুধ, এবং পানি কা পানি হয়ে গিয়েছে। জুনের সঙ্গে বিয়ের খবর প্রকাশ্যে আসার পর থেকে কার্যত নাজেহাল অবস্থা স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটির এই অধ্যাপকের। 

এক সময়ের জনপ্রিয় তারকা রাজ কিরণ, দিন কাটছে যার এখন পাগলাগারদে

ওই দুই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত খবর থেকে জানা যাচ্ছে, গণিতের অধ্যাপক সৌরভ জানিয়েছেন, তিনি কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন এই একটা খবরের জন্য। কারণ বহু সংবাদ মাধ্যমই নাকি অভিনেত্রীর সঙ্গে বিয়ের খবরে তাঁর ছবি প্রকাশ করেছেন। তাঁর অভিযোগ, সংবাদ মাধ্যমগুলি একবারও খতিয়ে দেখেনি, আদৌ এই সৌরভ তিনিই কিনা। তিনি বিবাহিত, তার এক সন্তান রয়েছে। সংবাদ মাধ্যম খতিয়ে দেখলে এই ভুলটা হত না।  

কীভাবে চোখ হারান জিনাত আমান, জানুন আসল সত্য

তিনি আরও জানান, তাঁর অনুমতি ছাড়াই ছবি ব্যবহার করা হয়েছে। যা তাঁর ভাবমূর্তিকে আঘাত করেছে। এবং একইসঙ্গে লজ্জায় ফেলে দিয়েছে। তাই একপ্রকার বাধ্য হয়েই তিনি আইনের দ্বারস্থ হয়েছেন। 

উল্লেখ্য, ডিসেম্বরেই সাতপাকে বাঁধা পড়তে চলেছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী জুন মালিয়া। যার সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধতে চলেছেন তিনি হলেন বিজনেসম্যান সৌরভ চট্টোপাধ্যায়।