সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকেই স্বজনপোষণ ও নেপোটিজম নিয়ে একের পর এক তারকা প্রশ্ন তুলেছে, গর্জে উঠেছে নেট দুনিয়াও। এবার সেই তালিকাতে নাম লেখালেন যিশু সেনগুপ্ত। তবে তাঁর মত বেশ খানিকটা ভিন্ন। যিশু নেপোটিজমের পক্ষে না গিয়েও কোথাও যেন সুর চরালেন স্বজনপোষণ ও প্রতীভা নিয়ে। যিশুর কথায় প্রতীভা থাকলে ও দক্ষতা থাকলে তাঁকে কেউ সরিয়ে রাখতে পারবে না। 

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে যিশু সেনগুপ্ত জানান, যদিও কেউ দক্ষ অভিনেতা বা অভিনেত্রী হন তবে তিনি কাজ পাবেনই। আর নেপোটিজম, তা কোথায় নেই। শুধু চলচ্চিত্র জগত খোলা বইয়ের মত বলেই তা সহজে মানুষের কাছে পৌঁচ্ছে যায়। অন্যান্য জায়গায় বরং এর থেকে অনেক বেশি রয়েছে। যিশুর কথায় স্টার কিডদের নিয়ে এত কথা হচ্ছে, সফল স্টারকিড তো হাতে গোনা। যদি ক্ষতিয়ে দেখা যায়, সাফল্য না পাওয়া স্টার কিডদের সংখ্যা অনেক বেশি। 

যিশুর কথায়, হৃত্বিক, টাইগার, আলিয়া বা রণবীর, কে নন ভালো অভিনেতা! এদের সকলকেই যিশুর খুব পছন্দ হয়। আর স্টারেরা তাঁদের সন্তানদের সাহায্য করবেই, কারণ তাঁরা রক্ত। সেখানে কোথাও ভুল নয়, কিন্তু একের পর এক ছবির প্রস্তাব পেতে গেলে ভালো কাজ করাটা একান্ত প্রয়োজন। সেটা ভুলললে চলবে না। তাই সুপাররিশ হয় এটা ঠিক, কিন্তু বহিরাগতরা কাজ পান না, বা প্রতীভা থাকার পরও তাঁদের ব্যর্থ হতে হয় এটা মানতে এক কথায় নারাজ যিশু সেনগুপ্ত।