চলতি বছরের ছবিটা অন্যান্য বছরের থেকে বেশ খানিকটা ভিন্ন। মানুষ গৃহবন্দি মারণ রোগের কোপে। লকডাউনে গোটা দেশ, বিনোদন জগত স্থগিত। এমনই সময় একের পর এক ফ্যাশন উইক থেকে শুরু করে ফিল্মফেস্টিভ্যাল বাতিলের পথে। ইতিমধ্যেই স্থগিত হয়েছে বেশ কয়েকটি। তবে হাতে মাত্র আর কয়েক মাস, কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে ঠিক কী হতে চলেছে, তা নিয় চিন্তার ভাঁজ। 

আরও পড়ুনঃ শহরজুড়ে শিশুমৃত্যুর আতঙ্ক, পাকাপোক্ত চিত্রনাট্যের আভাসে 'পেনগুইন'র ট্রেলার

বৃহস্পতিবারই এক বৈঠক করে নন্মনে সিদ্ধান্ত নেওয়া হল, বাতিল কিংবা স্থগিত করা নয়, নিয়ম রক্ষার খাতিরেই হবে চলচ্চিত্র উৎসব। তবে একাধিক নিয়মে তা বেঁধে ফেলার পথে কতৃপক্ষেরা।, থাকবে না আড়ম্বর, থাকবে না ভিড়। যে টুকু না হলে নয়, শুধু সেই টুকু দিয়ে নমো নমো করে সারার পথে মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর নিদের্শেই চলচ্চিত্র উৎসবে এবার কমছে বাজেট। স্থির হয়ে গিয়েছে উৎসবের দিনও। 

৫ নভেম্বর থেকে ১২ নভেম্বর চলবে এই অনুষ্ঠান। তবে সব হলে মিলবে না শো, হাতে গোনা কয়েকটি ও নন্দন চত্বরেই হবে চলচ্চিত্র উৎসব। এখানেই শেষ নয়, পাশাপাশি কমছে শো-এর সংখ্যাও। মানুষের ভিড় এড়াতেই এমন সিদ্ধান্ত। অন্যদিকে আমফান ও করোনার দাপটে অর্থভাণ্ডারে টান। তাই সেই দিকে নজর দিয়েই সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে। বৃহস্পতিবারের এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস, পরিচালক রাজ চক্রবর্তী সহ আরও অনেকে। চলতি বছরে ২৬শে পা চলচ্চিত্র উৎসবের।