দক্ষিণী কন্নড় ছবি 'পেনগুইন'-এর ট্রেলারে প্রশংসার ছয়লাপ। টিজারের পর ধীরে ধীরে রহস্যের জট খানিকটা খুলল ট্রেলারে। তবে আদৌ কি খুলল। বরং পেঁচিয়ে গেল গোটা চিত্রনাট্য। টিজারে যে স্পয়লার পাওয়া গিয়েছিল তা যে ইচ্ছাকৃত করেই পরিচালক রেখেছিলেন এবার বোঝা গেল। সেই স্পয়লার দর্শকদের কনফিউজ করার জন্য। ট্রেলারে সম্পূর্ণ ভিন্ন ডিমেনশন নিয়ে হাজির পেনগুইন। যে ছাতা নিয়ে এক দৃশ্যে কীর্থিকে ছেলের সঙ্গে হাঁটতে দেখা যাচ্ছে জঙ্গলের মধ্যে দিয়ে। সেই একই ছাতা চোখে পড়বে অন্য একটি দৃশ্যে। যেখানে চার্লি চ্যাপলিনের মাস্ক পরে মাটি খুঁড়ে কিছু একটার উপর কুঠার চালাচ্ছে একজন ব্যক্তি। 

আরও পড়ুনঃগ্রিন চ্যালেঞ্জে সামিল সাহো, এক হাজার একর জমি দত্তক নিলেন প্রভাস

কীর্থি কি তাহলে নিজের ছেলের উধাও যাওয়ার জন্য দায়ী। কারণ একদিকে তাঁকে ছেলের জন্য আর্তনাদ করতে দেখা গেলেও অন্য একটি দৃশ্যে চার্লি চ্যাপলিনের মাস্ক পরা ব্যক্তির পাশে সেই ছাতা রাখা অবস্থায় দেখা যাচ্ছে। এই নানা প্রশ্নে যখন নেটিজেনরা জর্জরিত, উত্তর খুঁজতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছিল সিনেপ্রেমীরা, তখনই ট্রেলারে পরতে পরতে খুলল অন্য গল্প।  সাইকোলজিকাল থ্রিলারটির ট্রেলারের আশায় বসেছিল সকলে। যা দেখার পর সিনেপ্রেমীদের উন্মাদনা তুঙ্গে। ছবিতে কীর্থি সুরেশ রয়েছেন প্রধান চরিত্রে। খুব বেশি হলে এক বছর বয়স হবে ছেলের। শিশুটির মায়ের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন কীর্থি। 

আরও পড়ুনঃসদ্য মারা গিয়েছেন স্ত্রী, খবর পেয়ে স্বামীকে বাড়ি পৌঁচ্ছে দেওয়ার উদ্যোগ নিলেন সোনু

চিত্রনাট্য অনুযায়ী, জঙ্গলে কীর্থির ছেলে হারিয়ে যায়। রক্তমাখা জ্যাকেট পায় সে জঙ্গল থেকে। পুলিশের ফোর্স এসেও কোনওভাবেই খুঁজে পাওয়া গেল না ছেলেকে। এরই মাঝে মিনিটখানেকের ট্রেলারে হাড় কাঁপানো কিছু দৃশ্যে চোখ কপালে উঠেছে দর্শকের। শিশুঅত্যাচার চিত্রনাট্যের প্রাধন জায়গা। কে বা কেনই শিশুর উপর অত্যাচার করে সিক্রেট চেম্বারে। সেই নিয়েই ঘুরবে গল্পের মোড়। এশাবার কার্থিকের পরিচালনায় তৈরি হয়েছে এই রহস্য রোমাঞ্চে ভরা ছবি। আগামী ১৯ তারিখ অ্যামাজন প্রাইমে ওয়ার্লড টিভি প্রিমিয়ার হবে ছবিটির। প্রযোজনায় রয়েছেন কার্থিকেয়ান সন্থানাম, সুধন সুন্দরম, জয়ারাম। পেনগুইন মুক্তি পাচ্ছে তিনটি ভাষায়। তামিল, তেলেগু এবং মালায়লাম। রহস্য-রোমাঞ্চে ভরা এই চিত্রনাট্যে কীর্থিকে পেয়ে বেজায় খুশি দর্শকমহল। বিনোদন জগতের সামান্থা আক্কিনেনি ইতিমধ্যেই শুভেচ্ছায় ভরিয়ে দিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।