প্রতিদিন সন্ধ্যে হতে না হতেই  শ্যামাকে দেখার জন্য মুখিয়ে থাকে একদল দর্শক। কালো চেহারার মিষ্টি মেয়েটির মধ্যে রয়েছে অনেক গুণ। ঢেউখেলানো চুল, লাল লিপস্টিক, আটপৌরে শাড়ি, কীর্তন গান-এই সবই যেন শ্যামার সঙ্গে যোগ্য সঙ্গত। কিন্তু ইদানিং যেন কিছুই মনে পড়ছে না শ্যামার। শ্যামা আর নিখিলের ভালবাসার মধ্যে প্রবেশ হয়েছে তৃতীয় নারীর। যার নাম মাম। এই মাম-ই এখন নিখিল -শ্যামার দূরত্বের প্রধান কারণ। নিখিলের জীবন থেকে শ্যামাকে সরাতে অপহরণ করিয়েছেন আম্রপালি।ধারবাহিকের প্রতিটি পর্বেই রয়েছে ট্যুইস্ট। কী হবে এবার, তা জানার জন্যই মুখিয়ে রয়েছে দর্শক। 

গাড়ি দুর্ঘটনায় ব্রিজ ভেঙে গাড়ি উল্টে যাওয়ার সময় শ্যামা গিয়ে পৌঁছায় অন্য গাড়িতে। এবং সেই গাড়ি করেই বারাণসী পৌঁছায় শ্যামা।  এক লাফে পার ১৮ বছর। এর মধ্যেই দেখা যাচ্ছে এক কিশোরীর মা শ্যামা। মায়ের মতোই দেখতে শ্যামাকে। মিষ্টি গলায় গান গায় শ্যামাকে।পরিবার-সংসার, নিখিল সবকিছুকেই ভুলে গিয়েছে শ্যামা।  নিখিল যেন কোনওভাবেই ভুলতে পারছেন না শ্যামাকে।

 

 

নিখিলকে সঙ্গ দেওয়ার জন্য তার জীবনে সঙ্গ দিচ্ছেন এক অন্য নারী। শ্যামাকে ভোলার জন্য মদের নেশায় আসক্ত নিখিল। কবে আবার একসঙ্গে দেখা যাবে নিখিল ও শ্যামাকে তা জানতেই আগ্রহী দর্শক। প্রতিটি পর্বেই রয়েছে নয়া চমক। অবশেষে কি মিল হবে নিখিল-শ্যামার, কবে আসবে সেই দিন। তার-ই অপেক্ষা। একটানা ৩ বছর ধরে চলছে সকলের প্রিয় ধারাবাহিক কৃষ্ণকলি। নেশায় চুর দেবদাস কি পারবে তার পারো-কে ভুলতে।